মিরকাদিমে চোর সন্দেহে যুবককে মধ্যেযুগি কায়দায় নির্মম নির্যাতন

মো: জাফর মিয়া: মুন্সীগঞ্জের মিরকাদিম পৌরসভার কমলাঘাট এলাকায় চোর সন্দেহে মোঃ সজিব (২৩) নামের এক যুবককে মধ্যেযুগি কায়দায় নির্মম নির্যাতন করা হয়েছে। ল্যাপটপ চুরির অভিযোগ এনে মঙ্গলবার রাত ৯ টা থেকে বুধবার বিকাল ৪ টা পর্যন্ত (১৮ ঘন্টা) চালানো হয় এই নির্যাতন।

জানা গেছে, মিরকাদিম পৌরসভার কমলাঘাট এলাকার শাহজামান মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া মোঃ মফিজ মিয়ার ছেলে মোঃ সজিবকে চোর সন্দেহ করে একই এলাকার শাহিন ভান্ডারীর ছেলে পাপ্পু ভান্ডারী (২৫) মেয়ের জামাই সোহাগ (২৬) সহ অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জন মিলে সজিবকে রাত ৯ টার দিকে কমলা ঘাটের মেলা থেকে পলিটেকনিক ইন্সিটিটিউট এর ছাত্রাবাসে ধরে নিয়ে যায় ।

পরে সেখানে একটি রুমে আটকে রেখে লোহার রড,পাইপ ও বৈদ্যুতিক তার দিয়ে রাতভর চালানো হয় নিমর্ম নির্যাতন। পরে বুধবার বিকালে সজিবের বাবা মফিজ মিয়া খবর পেয়ে স্থানীয়দের মাধ্যমে পৌর মেয়র মো: শহিদুল ইসলামকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি পুলিশকে খবর দেন। পরে গুরুতর অবস্থায় সজিবকে উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

সজিবের বাবা মফিজ মিয়া বলেন, আমার ছেলেকে মিছা অভিযোগ দিয়া রাইত আর দিনে অনেক মাইরধর করছে। আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই। আমরা গরীব বইলাকি বিচার পামুনা ?।

তবে নির্যাতনে বিষয়টি অস্বীকার করে হাতিমারা ফাড়ি ইনর্চাজ বিকাশ চন্দ্র সরকার বলেন, সামান্য বিষয় নিয়ে একটু ঝগড়া হয়েছে। এঘটনায় ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এখনো কোন পক্ষ অভিযোগ দায়ের করেনি । অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিক্রমপুর সংবাদ

Comments are closed.