গজারিয়ায় পিটিয়ে ও বাসের নিচে ফেলে যুবক হত্যা

তর্ক-বির্তকের একপর্যায়ে যাত্রীবাহী বাস থেকে নামিয়ে আব্দুল আউয়াল সরকার (৩৪) নামে এক যুবককে পিটিয়ে আহত করার পর অপর একটি বাসের নিচে ফেলে হত্যা করেছে পরিবহন শ্রমিকরা।

রোববার (২০ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পুরাচক বাউশিয়া এলাকায় এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।

এ সময় আউয়াল সরকারের সহযাত্রী তার ছোট ভাই আল আমিন, বোন ফরিদা আক্তার, ভগ্নিপতি সাইদুল ইসলাম ও ফুফাতো বোন কুলসুম বেগমকেও পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়।

নিহত আব্দুল আউয়াল সরকার কুমিল্লার মুরাদনগর থানার কৃষ্ণনগর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ন কবিরের ছেলে বলে জানা গেছে। তিনি ঢাকার মুগদা হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স চালক ছিলেন।

গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হেদায়েতুল ইসলাম ভূঁইয়া বাংলানিউজকে জানান, আব্দুল আউয়াল সরকার তার দাদী খায়রুন নেছার দাফন কাজে অংশ নিতে ঢাকা-লক্ষ্মীপুর রুটের আল্লাহ মেহেরবান নামে একটি বাসে করে গ্রামের বাড়ি যাচ্ছিলেন।

এ সময় বিচ্ছিন্ন ঘটনা নিয়ে বাসের চালক ও হেলপারের সঙ্গে আব্দুল আউয়ালের তর্ক-বিকর্ত শুরু হয়। একপর্যায়ে চালক ও হেলপার আউয়ালকে বাস থেকে নামিয়ে পিটিয়ে আহত করেন। এ সময় আউয়াল দৌড়ে বাঁচার চেষ্টা করলে তারা আউয়ালকে অপর একটি বাসে নিচে ফেলে দেয়। এতে বাসচাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধারের পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Comments are closed.