বৃদ্ধকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে মোঃ আনোয়ার হোসেন শেখ (৫৫) নামের এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে । জেলার লৌহজং উপজেলার বৌলতলী ইউনিয়নের মাইজগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

প্রত্যক্ষর্দশীরা জানান,তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার একটি সালিস বৈঠকের কথা বলে শুভ বেপারী ও তার সন্ত্রাসী দল বৃদ্ধ আনোয়ার হোসেনকে ডেকে একটি মাঠে নিয়ে যায়। পরে সেখানে তাকে লাঠিসোটা দিয়ে ব্যাপাক পিটিয়ে গ্রুরুতর আহত করে । আহত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে শনিবার গভির রাতে সে মারা যায়।

মাইজগাঁও গ্রামের বাসিন্দা মোঃ খোরশেদ ও টিটু জানান, শুক্রবার মাইজগাঁও গ্রামের একটি বাড়িতে দাওয়াত খাওয়া শেষে একই গ্রামের শুভ ও ইকবালের সাথে সিনিয়র ও জুনিয়র নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তা সংঘর্ষের রুপ নেয়। শুভ তার বাহিনী নিয়ে লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ইকবালের উপর ঝাপিয়ে পড়ে এরপর এলাকাবাসি দুজনকে থামিয়ে দেয়। বিকেলে শুভর পক্ষে শালিস মিমাংসার কথা বলে মাইজগাও গ্রামের জাহিদ, আনিছ, ইয়াছিন, মোশারফ হোসেন ইকবালের বাড়ির মুরুব্বি মোঃ আনোয়ার শেখ সহ আরো দুই তিনজনকে ডেকে নিয়ে আসে মাইজগাঁও বাজারে।

সেখানে আগে থেকেই প্রস্তুত ছিলো প্রতিপক্ষ শুভ আর তার বাহিনী সাঠিসোটা নিয়ে।বাজারে সেলিমের দোকানে বসে আনোয়ার শেখ সহ তার পক্ষের লোকজন এদিকে শুভর পক্ষের লোকজন আনোয়ার শেখ সহ তার লোকজনকে দোকান থেকে বের করে দিতে বলে সেলিমকে শুভর পক্ষের লোকজনের চরম উত্তেজনা দেখে সেলিম তার দোকান থেকে আনোয়ার শেখকে বের হয়ে বাড়ি চলে যেতে বলে।

আনোয়ার শেখ বাড়ি যাওয়ার জন্য দোকান থেকে বের হলে দেরোয়ার বেপাররি নির্দেশে শুভ, আনিছ, শান্ত, বাবু বেপারী, হাসান হাওলাদার, অনিক বেপারী, শাওন বেপারী, আক্তার হোসেন, মনির বেপারী ও আলমঙ্গীর বেপারী সহ ২০/২৫ জনের একটি গ্রুপ সংর্ঘবদ্ব হয়ে লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদেও উপর হামলা চালায় এ সময় আনোয়ার বেপারী গুরুত্বর আহত হয় এ ছারা খোরশেদ ও আলীনুর কে পিটিয়ে আহত করা হয়।

গুরুত্বর আহত অবস্থায় আনোয়ার শেখকে হাসপাতালে নেয়া হলে সে শনিবার রাতে মারা যায়। আনোয়ার বেপারীর মৃত্যুর খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পরলে এলাকায় চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে প্রতিপক্ষ দেলোয়ার বেপারী ও শুভ বাহিনী গ্রাম ছেরে পালিয়ে যায়। রবিবার লাশের ময়না তদন্তের জন্য মুন্সিগঞ্জে জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লৌহজং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)র্ মোল্লা জাকির হোসেন বলেন,লাশ ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে । মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে এবং এ ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে।

ক্রাইম ভিশন

Comments are closed.