ধর্ষণের অভিযোগে দুজনের রিমান্ড মঞ্জুর

গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে পাঁচ আসামির মধ্যে গ্রেফতারকৃত দুজনের ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন মুন্সীগঞ্জ আদালত। সিরাজদিখান উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের বালিয়াকান্দা গ্রামে স্বামী-সন্তানকে বেঁধে রেখে এক গৃহবধূকে (৩৬) গণধর্ষণের অভিযোগের কারণে বুধবার গভীর রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুজনকে গ্রেফতার করে। এরা হলেন, উপজেলার কেয়াইন গ্রামের নুরউদ্দিনের ছেলে মো. সেলিম (২৬) ও বালিয়াকান্দা গ্রামের মো. মনির হোসেনের ছেলে রকি (২৭)। বাকি তিনজন পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে সিরাজদিখান থানায় বৃহস্পতিবার মামলা হয়েছে, মামলা নং-২৪।

বাদীর অভিযোগে জানা যায়, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি রাত ৪টার দিকে ৫ দুর্বৃত্ত ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে, স্বামী ও ছোট ছেলের হাত-পা মুখ বেঁধে রেখে ওই গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। যাওয়ার সময় হুমকি দেয় কাউকে জানালে জানে মেরে ফেলবে। সকালে গৃহবধূকে অসুস্থ অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়। সুস্থ হয়ে ফিরে এসে তিনি মামলা করেন। গৃহবধূর বাড়ি শেরপুর নলিতা বাড়িতে। প্রায় ১২ বছর ধরে সিরাজদিখানের বালিয়াকান্দা গ্রামের বশির মিয়ার বাড়িতে তিনি পরিবার নিয়ে থাকেন।

সিরাজদিখান থানার ওসি মো. ইয়ারদৌস হাসান জানান, গৃহবধূর অভিযোগের প্রেক্ষিত ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের রিমান্ড চাওয়া হলে আদালত ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। বাকি তিন আসামি এখনও পলাতক রয়েছে।

বাংলা ট্রিবিউন

Comments are closed.