মুন্সীগঞ্জে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি: ভারী বর্ষণ

বৃহস্পতিবার রাতে প্রবল বৃষ্টির পানিতে ডুবে গেছে মুন্সীগঞ্জের অধিকাংশ ফসলি জমি। নষ্ট হয়ে গেছে কাচাঁ-পাকা টমেটো, রোপা বীজতলা থেকে শুরু করে নানা প্রকারের শাক-সবজির ক্ষেত। এতে চলতি মৌসুমে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির কারণে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন মুন্সীগঞ্জের কৃষকরা।

এছাড়া বৃষ্টির পানিতে ফসল প্লাবিত হয়ে পড়ায় আলু ও টমেটো ও শাক-সবজির সংকট দেখা দিতে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।

শুক্রবার সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, মুন্সীগঞ্জ শহরের চরকিশোরগঞ্জ এলাকায় অনেক টমেটো, আলু ও বিভিন্ন শাক-সবজির ক্ষেত পানিতে ডুবে রয়েছে।

চরকিশোরগঞ্জ (মোল্লাপাড়া) এলাকার রওশন বেপারী জানান, এবার ১৮ শতাংশ জমিতে আলুচাষ করেছিলেন। ভারী বর্ষণে ডুবে গেছে সব। পানি নিষ্কাশন করলেও কোনো লাভ হবে না। কারণ, এই আলু বেশীদিন টিকবে না। নষ্ট হয়ে যাবে।

একই গ্রামের সেরুন মোল্লা জানান, বৃষ্টি বেশি হওয়াতে আমার টমেটো ক্ষেত নষ্ট হয়েছে। একই অবস্থা জহির উদ্দিন, কাজিমউদ্দিন, আলম মাদবরসহ অনেকে কৃষকের। এসব কৃষকরা মনে করেন, এভাবে বৃষ্টি হওয়ায় সকল সবজি নষ্ট হয়ে যাবে। এছাড়া পানিতে সবজির ক্ষেত ডুবে যাওয়ায় সবজির আকাল দেখা দিতে পারে।

এদিকে ভারী বৃষ্টি বর্ষণের ফলে বিভিন্ন ফসলের জমিতে পানি লাগার ফলে গাছের গোরায় পানি আটকে গাছ নষ্ট হয়ে যাবে। এতে কৃষকদের মোটা অংকের টাকা লোকশান হবে বলে জানান কৃষকরা।

প্রচুর বৃষ্টি হওয়ায় ক্ষেতে পানি জমে গিয়ে গাছের গোড়ায় ছত্রাক আক্রমণ করতে পারে, এবং পোকামাকড়ও আক্রমণ করতে পারে।

কৃষকরা জানান, এ সময়ে সবজির ব্যাপক চাহিদা ও দাম থাকে, মুন্সীগঞ্জসহ বাইরের বিভিন্ন জায়গা থেকে পার্টি এসে সবজি লোড করে নিয়ে যায়।

ভোরের কাগজ

Comments are closed.