মিরেশ্বরাইতে সন্ত্রাসীদের সশস্ত্র মহড়া, গুলি বর্ষণ ও ভাংচুর

শেখ মো. রতন: জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মুন্সীগঞ্জ শহরের উপকন্ঠ পঞ্চসার ইউনিয়নের মিরেশ্বরাই এলাকায় ২০-২১ জনের কথিত আওয়ামীলীগের একদল সন্ত্রাসী গ্রæপ সশস্ত্র মহড়া চালিয়ে একাধিক গুলি বর্ষণ, ভাঙচুরসহ লুটপাট করেছে। বুধবার বিকালে এসব ঘটনা ঘটে।

এ সময় সন্ত্রাসীরা ৬ রাউন্ড গুলিবর্ষণ ও সীমানা প্রাচীর ভাঙচুর করে। প্রত্যক্ষ দর্শী এলাকাবাসী জানান, মিরেশ্বরাই গ্রামের সায়েদ আলী ও জিকু মাদবর গংদের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছে।

এ নিয়ে সপ্তাহখানেক আগে মিরেশ্বরাই মসজিদ কমিটি দুই পক্ষকে নিয়ে বসে সীমানা নির্ধারণ করে দেয়। এতে জিকু গং টিনের বেড়া দিয়ে সীমানা প্রাচীর করেন।

জিকু মাদবর জানান, বুধবার বিকাল দিকে শহর থেকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ২০-২১ জনের একটি সন্ত্রাসী দল যুবলীগ ক্যডার শাহজালালের নেতৃত্বে মোটর সাইকেলে করে সশস্ত্র মহড়া দিয়ে মিরেশ্বরাই গ্রামে প্রবেশ করে। এ সময় তারা সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে ৬ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে এবং আমার বৃদ্ধ মাকে লাথি দিয়ে ফেলে দেয় এবং আমি দৌড়ে পালিয়ে যাই। তারা বসতঘরে একাধীক রাউন্ড গুলি ছুড়ে ও কুপিয়ে ঘর ক্ষতিগ্রস্থসহ লুটপাট করে।

তবে প্রতিপক্ষ একই এলাকার সায়েদ আলী এ ঘটনা কিছুই জানেন না বলে জানান।

এ ব্যপারে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) ইউনুচ আলী জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে এখন ব্যস্ত রয়েছি পরে জানাবো।

তবে এ ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই শেখ সাদি এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জানান, বর্তমানে সে ব্যস্ত রয়েছেন পরে কথা বলবেন বলে এ কর্মকর্তা জানান।

টাইমটাচনিউজ

Comments are closed.