বাল্য বিবাহ বন্ধ করলেন ভারপ্রাপ্ত ইউএনও শাহিনা পারভীন

রাণী হক: মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের মালখানগর ইউনিয়নের ফুরশাইল গ্রামের শফি ফকিরের ১৩ বছরের মেয়ে সানজিদা আকতারের বিবাহ বন্ধ করলেন ভারপ্রাপ্ত ইউএনও শাহিনা পারভীন।এতে সহযোগীতা করেন সিরাজদিখান থানা পুলিশ।

জানা যায়, গত ১৪ জানুয়ারী মধ্যপাড়া ইউনিয়ন কাজী এম এ আহাদ এই বাল্য বিবাহ রেজিষ্টার কাজটি সম্পন করেন ।কাজী এম এ আহাদ তার কার্যালয়ে পাওয়া যায়নি।

টেলিফোন কাজী আহাদকে ইউএনও কার্যালয়ে বিবাহ রেজিষ্টারসহ হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেন।

সানজিদা আকতার মালখানগর উচ্চবিদ্যালয়রে ৮ম শ্রেণীর ছাএী।

মালখানগর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমির হোসেন জানান, এই বিষয়ে আমি জানিনা। আগামীকাল স্কুলে ছাএ-ছাএীদেরকে নিয়ে মানববন্ধন করা হবে। যদিও ঘটনাটি মালখানগর উচ্চবিদ্যালয়ে থেকে ২০০ গজ দূরে ঘটেছে।

এই প্রসঙ্গে সানজিদা আকতার ইউএনও শাহিনা পারভীনকে বলেন, আমার বয়স ১৩ বছর, আমি ভুল করেছি আমাকে মাফ করে দেন।

ইউএনও শাহিনা পারভীন বলেন, অপ্যাপ্ত বয়সে বিবাহের জন্য ১০০০ টাকা জরিমানা করা হয় এবং অনুষ্ঠানটি সামাজিক ভাবে বন্ধ করা হয়।

তিনি আরো জানান, বিবাহের কাজী আহাদকে রেজিষ্টার সহ হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হইয়েছে। শাহিনা পারভীন বলেন, এই ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে ।

ক্রাইম ভিশন

Comments are closed.