গজারিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স: জরুরি বিভাগ ফেলে ক্লিনিকে চিকিৎসক

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক শারমিন সুলতানা জরুরি বিভাগে দায়িত্ব ফেলে সেবা দেন প্রাইভেট ক্লিনিকে। গত শুক্রবার সকাল ৯টা হতে শনিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে ডিউটি চলাকালে ভবেরচর বেইলি ব্রিজসংলগ্ন এস কে আলম ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতালে রোগী দেখাসহ প্রসূতি সিজার করেছেন।

উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আসা রোগী ও তার স্বজনরা জানায়, সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসককে না পেয়ে প্রাইভেট ক্লিনিকে এসে শুক্রবার দিনভর চিকিৎসা নিতে বাধ্য হয়েছে।

এ বিষয়ে জরুরি বিভাগে দায়িত্বে থাকা চিকিৎসক শারমিন সুলতানা বলেন, ‘হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আমার ডিউটি শনিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ছিল। জরুরি বিভাগে আমার পরিবর্তে আমার দুলাভাইকে রেখে এখানে চিকিৎসা দিয়েছি। এখানে আমার কয়েকটি প্রাইভেট রোগী ও একটি ডেলিভারি সিজার করতে হয়েছে। সিজার শেষ করেই আবার ফিরে আসি।’

অস্ত্রোপচার করার যোগ্যতা প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমার সহকারী রেজিস্ট্রার হিসেবে অভিজ্ঞতা রয়েছে। তাই অপারেশনের কাজ করছি।’

কালের কন্ঠ

Comments are closed.