বিসিসিআইজে নবনির্বাচিতদের নাম ঘোষণা

রাহমান মনি: বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি ইন জাপান (বিসিসিআইজে)-এর নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নাম ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

প্রথমবারের মতো আয়োজিত বিসিসিআইজে নির্বাচন-২০১৫ চূড়ান্তভাবে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন বিসিসিআইজে নির্বাচন-২০১৫ নির্বাচন কমিশনের পক্ষে জিয়াউল ইসলাম।

নির্বাচিত সদস্যগণ হলেন
১. মি. বাদল চাকলাদার, ম্যানেজিং ডিরেক্টর, পদ্মা কোম্পানি লিমিটেড
২. মি. হাকিম মোঃ নাসিরুল, ম্যানেজিং ডিরেক্টর, হ্যাট কোম্পানি লিমিটেড
৩. মি. শেখ মনজুর মোর্শেদ, প্রেসিডেন্ট, সাম্পান ট্রেডিং লিঃ (সাম্পান গ্রুপ)
৪. মি. আহসান শামীম, প্রেসিডেন্ট, ইমপেস্কো জাপান লিমিটেড
৫. মি. মোঃ সানাউল হক, সিইও, সাদিয়াটেক কোঃ লিমিটেড
৬. মি. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, প্রেসিডেন্ট, লিঙ্কারস ট্রাভেল লিমিটেড
৭. মি. কাজী এনামুল হক, প্রেসিডেন্ট, আইকন কোঃ লিমিটেড
৮. মি. ঠাকুর গুল মোহাম্মদ, প্রেসিডেন্ট, ডেস্টিনি ইঙ্ক
৯. মি. রেজাউল করিম রেজা, প্রেসিডেন্ট, ডিএন্ডডি কর্পোরেশন
১০. মি. চৌধুরী শাহিন, ম্যানেজিং ডিরেক্টর, চৌধুরী ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল কোঃ লিঃ
১১. মি. মোঃ মিজানুর রহমান শাহিন, প্রেসিডেন্ট, জেবিনেট কর্পোরেশন।

নির্বাচন কমিশনের পক্ষে জিয়াউল ইসলাম স্বাক্ষরিত ঘোষণাপত্রে নবনির্বাচিত কমিটিকে ক্ষমতা হস্তান্তরের দিন থেকে দুই বছর মেয়াদে অনুমোদনের কথা উল্লেখ করা হয়।
প্রথমবারের মতো আয়োজিত নির্বাচনে কমিটি ঘোষণা ছিল আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষণা অনুযায়ী নির্বাচনে অংশগ্রহণ ফি (২ লাখ ইয়েন) জমা ১৫ অক্টোবর ২০১৫, মনোনয়নপত্র জমা ১৭ অক্টোবর এবং মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৫ অক্টোবর সমস্ত আনুষ্ঠানিকতা মেনে কেবল উপরোল্লিখিত ১১ জন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। বিসিসিআইজে যেহেতু ১১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি হবে তাই আর কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকাতে ২৫ অক্টোবর নির্বাচন কমিশনের পক্ষে মোঃ জাহির সকলের মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা দেন এবং পরবর্তী করণীয় ২৭ নভেম্বর (তফসিল ঘোষণা অনুযায়ী নির্বাচনের নির্দিষ্ট দিন) বিসিসিআইজে’র নিজস্ব ওয়েবসাইটে জানানোর ঘোষণা দেন। তখনই নির্ধারিত হয়ে গিয়েছিল প্রথমবারের মতো কমিটি ঘোষণায় কে বা কারা আসছেন। বাকিটা ছিল আনুষ্ঠানিকতা মাত্র।
পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সংগঠনের নিজস্ব ওয়েবসাইটে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে ঘোষণা দেয়া হয় ২৭ নভেম্বর রাতেই। এই ব্যাপারে জিয়াউল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ফোনে তিনি নিশ্চিত করে বলেন, আমরা সংগঠনের সংবিধান মেনে বাধ্যবাধকতা থেকেই সবকিছু করেছি। শীঘ্রই নবনির্বাচিতদের কাছে সবকিছু বুঝিয়ে দেয়া হবে বলে এই প্রতিনিধিকে জানান এবং সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, নবনির্বাচিত কমিটিকে অনুমোদন দেয়ার জন্য অর্থ, বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের (METI) কাছে বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে এক চিঠিতে অনুরোধ জানানো হয়। পরবর্তী আপডেটের জন্য চোখ রাখুন সাপ্তাহিক ডটকম-এ।

rahmanmoni@gmail.com

সাপ্তাহিক

Comments are closed.