শ্রীনগরে ঘাতক কার কেড়ে নিল একই পরিবারের ২ স্কুলছাত্রের প্রাণ

আরিফ হোসেন: ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে ঘাতক প্রাইভেট কার কেড়ে নিয়েছে একই পরিবারের ২ স্কুলছাত্রের প্রাণ। এঘটনায় আরো ১ স্কুলছাত্র সহ ৮ জন গুরুতর আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশংকাজনক। রবিবার বিকাল পাঁচটার দিকে উপজেলার কেয়ট খালী বাস ষ্ট্যান্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত স্কুল ছাত্র শুভ ও সৌরভ সম্পর্কে চাচাতো ভাই। শুভর বাবার নাম সিরাজুল ইসলাম ও সৌরভের বাবার নাম মো: জাহাঙ্গীর। শুভ, সৌরভ ও তরিকুল তিন জন মিলে স্কুল ছুটির পর হাসাড়া থেকে কেয়টখালি গ্রামে নিজেদের বাড়িতে ফিরছিল।

দুর্ঘটনার পর থেকে উত্তেজিত জনতা ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে দেড় ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ করে রাখে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মাওয়া থেকে ঢাকা গামী ইলিশ পরিবহনের একটি যাত্রীবাসী বাস পেছন দিক থেকে একটি প্রাইভেট কারকে ধাক্কা দিলে কারটি রাস্তায় দাড়িয়ে থাকা হাসাড়া কালী কিশোর উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর তিন ছাত্র শুভ (১২), তরিকুল (১৩) ও সৌরভ (১৩) কে চাপা দিয়ে পার্শ্ববর্তী খাদে পরে যায়। এতে প্রাইভেট কারের চালক সহ আরো ৫ যাত্রী গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এদের মধ্যে স্কুল ছাত্র শুভ ও সৌরভ সহ ৫ জনকে আশংকা জনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। ঢাকায় নেওয়ার পথে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার স্কুল ছাত্র শুভ ও সৌরভের মৃত্যু হয়। প্রাইভেট কারের যাত্রীদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

Comments are closed.