ফেরী চলাচলের জন্য সোমবারের মধ্যে চ্যানেল খুলে দেয়া হবে : নৌ পরিহন মন্ত্রী

নৌ পরিহন মন্ত্রী মো. শাজাহান খান বলেছেন, আসন্ন কোরবানির ঈদে ঘরমুখো মানুষের ফেরী পারাপারে যাতে বিঘœ সৃষ্টি না হয়, সেজন্য নৌ চ্যানেলগুলোতে ড্রেজিং অব্যাহত রয়েছে।

তিনি বলেন, আগামী সোমবারের মধ্যে ড্রেজিং করা চ্যানেল পুরোপুরি খুলে দেয়া হবে। ২১ সেপ্টেম্বর থেকে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌ-রুটের ফেরী চলাচলও পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়ে আসবে। সব ক’টি ফেরিতে যাত্রীরা নির্বিঘেœ পারাপার করতে পারবে। ফেরি পারাপারে কোন সমস্যা হবেনা। ঈদে ঘরমুখো মানুষও নির্বিঘেœই বাড়ি ফিরতে পারবে।’

মো. শাজাহান খান শনিবার দুপুরে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা জানান।

এদিকে আসন্ন ঈদে যাত্রীদের নিরাপদে বাড়ি পৌঁছাতে দক্ষিণ অঞ্চলের ২১ জেলার প্রবেশদ্বার শিমুলিয়ায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। যাত্রীদের যানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে শিমুলিয়া ঘাটে বসানো হয়েছে সিসি টিভি।

ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখতে পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি এএসএম মাহফুজুল হক নুরুজ্জামান আজ সকালে শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শন করেন। যাত্রীদের নিরাপত্তায় ওয়াচ টাওয়ারে সিসি কামেরা স্থাপন করায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং যাত্রীদের সার্বিক নিরাপত্তায় স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেন।

অপরদিকে নৌ-মন্ত্রী শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শনের পর সাংবাদিকদের জানান, এ নৌ-রুটে বর্তমানে ফেরি চলাচল করছে দু’টি চ্যানেল দিয়ে ওয়ানওয়ে পদ্ধতিতে। এর মধ্যে পালেরচর-মাঝিকান্দি চ্যানেল দিয়ে যানবাহন নিয়ে ফেরি যাচ্ছে কাওড়াকান্দি ঘাটে।

এছাড়াও লৌহজং-হাজরা চ্যানেল দিয়ে ফেরি আসছে শিমুলিয়া ঘাটে। বর্তমানে ৩টি রো-রো ফেরি, ৫টি কে-টাইপ ফেরি ও ২টি ডাম্প নিয়ে মোট ১০টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ঢাকা রেঞ্জের ডি.আই.জি এএসএম মাহফুজুল হক নুরুজ্জামান শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শনকালে ঈদের আগে-পরে যানবাহনে অতিরিক্ত যাত্রীবহন এবং অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার ওপর কড়া পুলিশী নজর রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

ডিআইজি বলেন, যাত্রীদের নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে। যানজটসহ বিভিন্ন পরিস্থিতি মোকাবেলায় পুলিশের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখা হবে।

তিনি বলেন, যাত্রীদের নিরাপত্তায় ঘাট ও ঘাট সংলগ্ন মহাসড়কে ৫ শতাধিক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

বাসস

Comments are closed.