কাজীরগাঁওয়ে অবৈধ ড্রেজিংয়ে ব্যাপক ভাঙ্গন

তালতলা-ডহুরী খালের বালু উত্তোলনে লৌহজং উপজেলার কাজীরগাঁওয়ে ব্যাপক ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এতে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মসজিদ, কবরস্থান, যোগাযোগের প্রধান সড়ক, কয়েক শ’ বসতঘর, বিস্তীর্ণ ফসলী জমি হুমকির মুখে পড়েছে। একটি প্রভাবশালী চক্র অনুমতি ছাড়াই যত্রতত্র খাল থেকে বালু লুট করছে। এতেই দেখা দিয়েছে ভাঙ্গন।

বালু উত্তোলনবন্ধসহ গ্রাম রক্ষার জন্য আন্দোলনে নেমেছে গ্রামবাসী। বৃহস্পতিবার গ্রামবাসীরা খালের পাড়ে ভাঙ্গনকবলিত এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে। গ্রামবাসী গ্রামরক্ষা কমিটিও গঠন করেছে। কমিটির আহ্বায়ক মোঃ সাহাবুদ্দিন স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দায়ের করেন।

গ্রামবাসী জানান, তালতলা-ডহুরী খালের অপর পারে টঙ্গীবাড়ি উপজেলার বালিগাঁওয়ের কাইয়ুম মাঝি, মিজান সিন্ডিকেট এই বালু উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত। মাসখানেক ধরে এ অঞ্চলে মাটি কাটা শুরু করে। যত্রতত্র মাটি কাটার ফলে কাজিরগাঁওসহ পার্শ্ববর্তী ক্ষেতেরপাড়া, চাষী বালিগাঁও, ইসলামপুর, গোয়ারা হুমকির মুখে রয়েছে। এর মধ্যে কাজিরগাঁওয়ের শিকদার বাড়ির অধিকাংশ বিলীন হয়ে গেছে। খালের ওপারে বালিগাঁও-লৌহজং সড়ক সংযোগের গুরুত্বপূর্ণ বেইলি ব্রিজটিও হুমকির মুখে রয়েছে।

বালিগাঁও বাজার থেকে সুবচনী বাজার পর্যন্ত অবৈধ বালু উত্তোলনের কাজে নিয়োজিত রয়েছে প্রভাবশালীদের আরও বেশ কয়েকটি ড্রেজার। এসব প্রভাবশালী কারও কথা না শুনে উত্তোলন করে চলছে বালু। এতে খালের আশপাশের অন্য গ্রামগুলো রয়েছে হুমকির মুখে। অচিরেই এসব অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ না করা হলে আশপাশের গ্রামগুলো বিলীন হয়ে খালটি পরিণত হতে পারে একটি বিশাল নদীতে।

জনকন্ঠ

Comments are closed.