২৮ বছরে মিলেনি টেকের হাট: জমি দখলের চেষ্টা!

জমি ফেরৎ চেয়ে মালিকদের আবেদন
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের লতব্দি ইউনিয়নের টেকের হাট-বাজার দীর্ঘ ২৮ বছরেও মিলেনি। একটি শক্তিশালী মহল সংগঠনের নামে, হাট বাজারে কিছু জমি দখল করে রেখেছে। আরো কিছু দখলের পায়তারা করছে। এমন অভিযোগ জমি দাতাদের।

১৯৮৭ সালে তিন গ্রামের ১৯ জন দাতা ৫ একর ৩৬ শতাংশ জমি হাট বাজারের নামে জেলা ডেপুটি কমিশনার বরাবর রেজিস্ট্রি করে দিয়েছিলেন। বর্তমানে হাট-বাজার চালু না থাকায় তাদের জমি ফেরৎ চেয়ে ৩১ আগষ্ট সোমবার জেলা প্রশাসকের নিকট একটি আবেদন দাখিল করেছেন।

জমিদাতাগন উপজেলার দোসর পাড়া গ্রামের আব্দুল হাসেম, রামানন্দ গ্রামের আসলাম মোল্লা, মো. আলাল উদ্দিন, খোরশেদ ও কংশপুরা গ্রামের মো. সেন্টু খান জানান, আমরা ৮৭ সালে হাট বাজার বসানোর জন্য তিন গ্রামের ১৯ জন ৫ একর ৩৬ শতাংশ জমি জেলা ডেপুটি কমিশনার বরাবরে রেজিস্ট্রি করে দেই। সেখানে উল্লেখ থাকে যদি হাট বাজার মিলানো সম্ভব না হয় তবে যার যার জমি ফেরৎ পাবে। ১ম বছর মোটামুটি মিললেও ২য় বছর থেকে আজ ২৮ বছর যাবৎ হাট বাজার মিলছে না। একটি পক্ষ সংগঠনের নাম ভাঙিয়ে কিছু জায়গা দখলে রেখেছে। আরোকিছু দখলের চেষ্টা করছে। বাধা দিতে গেলে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হতে পারে। তাই জেলা প্রশাসক বরাবর আমাদের দেওয়া জমি আমরা ফেরৎ চেয়ে আবেদন করেছি।

টেকের হাট-বাজার কমিটির সভাপতি আব্দুল মান্নান কোম্পানী জানান, আমিতো ২৯ বছরের নাম মাত্র সভাপতি, কোন কার্যক্রম নাই। যারা জমি দিয়াছে তখন দলিলে উল্লেখ ছিল, হাট না মিললে ফেরৎ দেওয়ার কথা। সরকারি লিষ্টে ইজারা থাকলেও, ২৮ বছরে হাট মিলেনি । জমি দাতা অনেকে মারা গেছে অনেকে বেঁচে আছে। ফেরৎ দিতে না পারলে আমি ঋণী থেকে যাব। আমারও বয়স হয়েছে। দিন দিন জায়গা বেদখল হয়ে যাচ্ছে তাই ডিসির নিকট আবেদন করেছি জমি ফেরৎ পাওয়ার জন্য।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বেগম শাহিনা পারভীন জানান, বাজারের জমি দখল এমন কোন তথ্য আমাকে কেউ জানায়নি। লিখিত ভাবে জানালে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

সবখবর

Comments are closed.