কিডনি পাচার চক্রের পাঁচ সদস্য গ্রেফতার

রাজধানীতে অভিযান চালিয়ে কিডনি পাচারকারী চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। চক্রের প্রলোভনে পড়া জয়পুরহাট ও মুন্সীগঞ্জের দুই ব্যক্তিকেও উদ্ধার করা হয়েছে এ সময়।

শুক্রবার রাতে শাহবাগ ও গাবতলী থানা এলাকা এই অভিযান চালায় ডিবি।

গ্রেফতার পাঁচজন হলেন আব্দুল জলিল, শাকিল আহমেদ, রাব্বি, দিহান ও আশিকুর রহমান।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মুনতাসীরুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তিরা দেশে-বিদেশে কিডনি কেনা-বেচার সঙ্গে জড়িত। তাদের কাছ থেকে কিডনি নেয়ার জন্য প্রস্তুত দুই ব্যক্তিকেও উদ্ধার করা হয়েছে।”

শনিবার দুপুরে গ্রেফতার পাঁচজন ও উদ্ধার দুজনকে সাংবাদিকদের সামনে আনে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

ডিবির জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার মাহমুদা আফরোজা লাকি বলেন, “জলিল এই চক্রের হোতা। সে বিভিন্ন এলাকা থেকে ক্লায়েন্ট সংগ্রহ করে। পরে কিডনি নিয়ে তা দেশে ও ভারতে বিক্রি করে।”

জয়পুরহাটের জলিল সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ২০১১ সালে তিনি নিজের একটি কিডনি বিক্রি করেছিলেন। তার অস্ত্রোপচার হয়েছিল ভারতে।

এরপর তিনি নিজেও পাচারকারী চক্রে ভিড়ে যান। প্রতিটি কিডনি জোগাড় করে দিলে ৫০ হাজার টাকা পান তিনি।

উদ্ধার একজনকে জয়পুরহাট থেকে ঢাকায় এনেছিলেন জলিল। কিডনি দেয়ার বিনিময়ে তাকে সিএনজি অটোরিকশা কিনে দেয়ার প্রলোভন দেখানো হয়।

বাংলাপোষ্ট

Comments are closed.