খুনের চেষ্টাকালে টঙ্গীবাড়ীতে ভাড়াটিয়া খুনি আটক

টঙ্গীবাড়ী উপজেলার পাচঁগাওঁ গ্রামের ইদ্রিস মেম্বার এর বাড়ির সামনে এক শিশুকে খুনের চেষ্টাকালে বৃহস্পতিবার সকালে ভাড়াটিয়া খুনি সোহেল তাতীকে (২৫) এলাকাবাসী আটক করে পুলিশে সোপাদ্দ করেছে।

জানাগেছে, শরিয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার নপাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেন এর ছেলে জুবেল (১০) বৃহস্পতিবার সকালে নিজ বাড়ি হতে টঙ্গীবাড়ী উপজেলার পাচঁগাওঁ গ্রামের খালার বাসায় যাচ্ছিলেন। পথমধ্যে পাচঁগাওঁ গ্রামের ইদ্রিস মেম্বার এর বাড়ির সামনে ওই শিশুকে পথরোধ করে কাদামাটির মধ্যে চেপে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা করে ভারাটিয়া খুনি সোহেল। এ সময় পাশের জমিতে ঔষধ স্প্রে করতে থাকা এক কৃষক শব্দ পেয়ে দৌড়ে গিয়ে সোহেলকে ধরে চিৎকার করলে আশে পাশের লোক এগিয়ে গিয়ে গণধোলাই দিয়ে তাকে আটক করে পুলিশে সোপাদ্দ করে। সোহেল সাংবাদিকদের জানান, নড়িয়া গ্রামের মৃত জয়নাল তাতীর ছেলে আদম ব্যাবসায়ী খোকন (৫০) তাকে শিশু জুবেলকে খুন করতে ভাড়া করে। খুন করতে পারলে তাকে অনেক টাকা দেওয়া হবে এবং বিদেশ নিয়ে যাবে বলে লোভ দেখায়। এতে সে রাজি হয়ে জুবেলকে খুন করতে উদ্যেত হলেও পরে তার মায়া হওয়ায় সে তাকে খুন করেনি।

জুবেলের পিতা আনোয়ার হোসেন জানান, আদম ব্যাবসায়ী খোকন আমার শ্যালক কাশেমকে সম্প্রতি ৫ লক্ষ টাকার বিনিময়ে মালয়শিয়া নেয়। কিন্তু সেখানকার ইমেগ্রেশন পুলিশের হাতে ধরা পরে কাশেম মালয়শিয়া জেল হাজতে বন্দি রয়েছে। এ বিষয় নিয়ে প্রায় ২ মাস আগে আমার সাথে খোকনের ঝগড়া বিবাদ হয়। এর জের ধরে খোকন ভাড়াটিয়া খুনি সোহেলকে দিয়ে আমার ছেলে জুবেলকে হত্যার চেষ্টা করে। সোহেল নপাড়া গ্রামের আ. হাই তাতীর ছেলে। এ ব্যাপারে সোহেলের পিতা আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে টঙ্গীবাড়ী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। এ ব্যাপারে টঙ্গীবাড়ী থানা এসআই হুমায়ূন কবির জানান, শিশুটিকে মারধর করে তার কাছ হতে টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায় সোহেল। এ সময় এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশে সোপাদ্দ করে।

বিক্রমপুর চিত্র

Comments are closed.