ইন্তেকাল: বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মিজানুর রশিদের

বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও আইনজীবী এডভোকেট মিজানুর রশিদ মঙ্গলবার রাতে ঢাকার একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে… রাজেউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬৪ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক কন্যা, আত্মীয়-স্বজন ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

বুধবার শহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ও জেলা আইনজীবী সমিতি সংলগ্ন কালেক্টরেট ঈদগায় নামাজের জানাজা শেষে কাটাখালি কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

তার সম্মানে মুন্সীগঞ্জ জেলা জজকোর্টে ‘ফুলকোর্ট ডেথ রেফারেন্স’ অনুষ্ঠিত হয়। একই সাথে পুরো দিনের বিচারিক কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়।

মিজানুর রশিদ অধুনালুপ্ত দৈনিক আজাদ পত্রিকার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। তিনি দৈনিক স্বদেশের স্টাফ রিপোর্টার ছিলেন। রাজশাহী থেকে প্রকাশিত দৈনিক বার্তার সিনিয়র রিপোর্টারের দায়িত্ব পালন করেন। পরে সাংবাদিকতার পেশা ছেড়ে দিয়ে ১৯৯৩ সালে মুন্সীগঞ্জ জেলা জজ কোর্টে আইন পেশায় নিয়োজিত হন। সাংবাদিকতা পেশায় তার অনেক সহকর্মী রয়েছেন।তার মৃত্যুর সংবাদে পুরনো সহকর্মীদের মাঝে শোকের সঞ্চার হয়।

মহান মুক্তিযুদ্ধে অস্ত্রাগার লুটসহ নানা বীরত্বগাথা এবং সততা ও তার সাহসী কর্মকান্ডকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছে মুন্সীগঞ্জবাসী। তার মৃত্যুতে শহরে শোকের ছায়া নেমে আসে।

তার মৃত্যুতে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আনিস-উজ জামান, সাবেক পৌরমেয়র এডভোকেট মুজিবুর রহমান, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মো. ইকবাল হোসেন, পিপি এডভোকেট আব্দুল মতিন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট শ ম হাবিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসিমা আক্তার, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এম এ কাদের, মুন্সীগজ্ঞ প্রেসক্লাব সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল ও সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান গভীর শোক প্রকাশ এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

বাসস

Comments are closed.