জাল দলিলে নামজারী করার সময় হাতে নাতে আটক ২

রাণী হকঃ মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিস থেকে জাল দলিলের অভিযোগে দুই জনকে গ্রেপ্তার করে কারাদন্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

১৩জুলাই সোমবার বিকাল ৫টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, সিরাজদিখান সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহিনা পারভীন এ রায় প্রদান করেন।

দন্ড পাওয়া ব্যক্তিরা হলেন: উপজেলার কেযাইন ইউনিয়নের বড়ই হাজী গ্রামের লোকাস কস্তার ছেলে বকুল কস্তা (৪৮) ও একই উপজেলার মজিদপুর গ্রামের মৃত বেনী দেশাইয়ের ছেলে রবিন দেশাই(৬০)।

ভূমি অফিস সূত্রে জানা গেছে, সোমবার দুপুর ১২টায় উপজেলা ভূমি অফিসে মিস কেসের শুনানি থাকায় রবিন দেশাই ও বকুল দেশাই ও তাদের জাল দলিল কারক (অঞ্জাত নাম) হাজির হন ।জাল দলিল ও মূল দলিলের উপরে ঘষা দলিল নাম্বার বসিয়ে হাজির হলে উপজেলা সহকারী কমিমনার(ভূমি) শাহীনা পারভীনের সন্দেহ হলে তাদের কাছ থেকে প্রায় এক কোটি টাকা মূল্যের জাল দলিল জব্দ করা হয়।

এ সময় দই জনকে আটক করা হলেও জাল দলিল তৈরী কারক দৌড়ে পালিয়ে যায় ।

এ ব্যাপারে সিরাজদিখান সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহিনা পারভীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দীর্ঘদিন থেকে একটি চক্র উপজেলার আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় জাল দলিলের মাধ্যমে মানুষকে প্রতারনা করে আসছিল। ভ্রাম্যমান আদালতে তাদের সাত দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।

২ জনকে আটক করে থানা হাজতে প্রেরণের পর স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা তাদের ছাড়ানোর সুপারিশ করিলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহিনা পারভীন জানান প্রয়োজনে আমাকে এখান থেকে বদলী করার ব্যবস্থা করেন তবুও আমি জাল দলিল চক্রের কাউকে ছাড় দিব না । আমি যতদিন এ চেয়ারে থাকব ততদিন আমি কোন অন্যায় কাজ হতে দেব না ।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বদলী হয়ে চলে যাওয়ার কথা বলিলে এজলাসের আশে পাশের জনতা উচ্চস্বরে বলে উঠেন এই ম্যাডামকে আমাদের দরকা্র । এরকম সৎ,যোগ্য ও মেধাবী ম্যাজিস্ট্রেট আগে আসলে তহশীলদার ও দালাল চক্ররা নামজারীর নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিতে পারতেন না ।

জনতা উপস্থিত সাংবাদিকদের মাধ্যমে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট আসামীদের রিমান্ডে নিয়ে কারা এ জাল দলিল তৈরী করে আসছে তা বের করার জো্র দাবী জানান ।

আরও খবর নিয়ে জানা যায় মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসন জাল দলিলের বিরুদ্ধে নড়েচড়ে বসছেন।

ক্রাইমভিশণ

Comments are closed.