শ্রীনগরের তুহিন নবাবগঞ্জে পিস্তলসহ আটক

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় বুদ্ধিমত্তার জোরে আসন্ন বিপদ থেকে রক্ষা পেয়েছেন ইকবাল নামে এক যুবক। এ সময় তিনি বিদেশি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলিসহ মো. তুহিন (২২) নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। বুধবার (১৭ জুন) রাতে উপজেলার বেনুখালী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটক তুহিন মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার কেওয়ারখালী গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে বলে জানা গেছে।

নবাবগঞ্জ থানার ভারপাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, বুধবার রাত ৯টার দিকে ইকবাল নামে এক যুবক মোটরসাইকেলে করে ঢাকা যাচ্ছিলেন। তিনি উপজেলার বেনুখালী চক এলাকায় পৌঁছুলে মোটরসাইকেল নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা তিন যুবক তার মোটরসাইকেলের গতিরোধ করেন।

পরে তারা বলেন, ভাই আমাদের মোটরসাইকেলের তেল শেষ হয়ে গেছে। আমাদের একজনকে একটু ঢাকায় পৌঁছে দেবেন। এ অনুরোধে তুহিন নামে একজনকে তার মোটরসাইকেলের পেছনে উঠিয়ে তিনি রওনা দেন। কিছুদূর যাওয়ার পর ইকবাল দেখতে পান তেল শেষ হয়ে যাওয়া মোটরসাইকেলে করে ওই যুবকরা তার পিছু নিয়েছেন।

এ সময় ইকবাল তার মোটরাসইকেল ঘুড়িয়ে বলেন, ভাই আমার আইফোনটি বেনুখালী একটি মোবাইলের দোকানে চার্জ দেওয়ার জন্য রেখে এসেছি। আইফোনটি নিয়েই আমরা ঢাকায় যাব। এতে পেছনে থাকা তুহিন উৎসাহিত হয়ে তার কথায় সায় দেন।

বেনুখালী পৌঁছে ইকবার মোটরসাইকেল থামিয়ে স্থানীয় লোকজনদের বিষয়টি খুলে বললেই তারা তুহিনকে ধরে তার সঙ্গে থাকা ব্যাগটি তল্লাশি করে একটি পিস্তল দেখতে পায়। এ সময় জনতা তুহিনকে মারধর করে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ পিস্তল থেকে লোড করা তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে।

তিনি আরো জানান, বৃহস্পতিবার মামলা দায়ের করে তুহিনকে আদালতে পাঠানো হবে এবং রিমান্ড চাওয়া হবে। রিমান্ডে এনে তার কাছ থেকে সমস্ত তথ্য উদ্ধার করা হবে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Comments are closed.