নিয়ন্ত্রণহীন নেশার সাগরে ভাসছে মুন্সীগঞ্জ

অবাধে মাদক বিক্রি ও নিয়ন্ত্রণহীন মাদক ব্যবহারের কারণে নেশার সাগরে ভাসছে মুন্সীগঞ্জ শহরের তরুন ও যুবসমাজ। ধীরে-ধীরে তরুন ও যুবসমাজের মধ্যে সংক্রামক ব্যাধির মতো হামলে পড়ছে নেশার মরণ ছোবল। সদর উপজেলার সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে মাদকের ব্যবহার। সমাজের বিত্তবান পরিবারের যুবক থেকে শুরু করে নিন্ম আয়ের পেশাজীবিরাও পিছিয়ে নেই মাদক সেবন থেকে।

বিভিন্ন সূত্রে তথ্য নিয়ে জানা গেছে, সর্বনাশা মাদক দ্রব্য, ইয়াবা, গাঁজা, মদ, ফেন্সেডিল ও বিভিন্ন নেশা জাতীয় মালামাল এখন হাত বাড়ালেই সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও শহরে পাওয়া যায়। সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকাকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠেছে মাদকদব্যের রমরমা ব্যবসা। এসব মাদক ব্যবসায়ীরা ঢাকার গড়ফাদারদের সাথে মিল রেখে চোরাই পথে মাদকদ্রব্য সরবরাহ করে। পরে সদর উপজেলাসহ বিভিন্ন এলাকার যুব সমাজের কাছে ছড়িয়ে দেয়। নির্দিষ্ট স্পটেতো বটেই, পাশাপাশি মাদকও এখন চলছে মোবাইল কালচার। নির্দিষ্ট মোবাইল ফোনে চাহিদা জানিয়ে দিলেই অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে পৌঁছে যাচ্ছে তা মাদকসেবীদের নিকট।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মুন্সীগঞ্জ সদরে মাদক ব্যবসায়ীর চেয়ে মাদকাসক্তের সংখ্যা অনেকাংশে বেশী। তারা বলছে শহরের বুকের ওপর দিয়ে উপজেলার সর্বত্র এলাকায় পৌঁছে যাচ্ছে সর্ব প্রকার মাদক। কিন্তু পুলিশ পশাসনের চোঁখে ধুলা দিয়ে অবাধে মাদক পাচার ও সংগ্রহ করতে পারায় একদিকে এটি মাদক ব্যবসার উপযোগী উর্বর অঞ্চল হয়ে দাড়িয়েছে। নিয়ন্ত্রণে প্রশাসন থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানায় পুলিশ। এ সমস্য সমাধানে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে এটাই কামনা করছেন মুন্সীগঞ্জ শহর বাসী।

এবিনিউজ

Comments are closed.