উপনির্বাচন: জমে উঠেছে লৌহজংয়ের উপনির্বাচন

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন জমে উঠেছে। আগামী ১৪ জুন এ ইউপির ভোট গ্রহণ। এই উপনির্বাচনে দুইজন প্রাথী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। দু’জনই আওয়ামীলীগ ঘরানা প্রার্থী। তবে দলীয় মননোয়ন নিয়ে মোজাম্মেল হক (প্রতীক-তালগাছ) অনেকাংশে এগিয়ে রয়েছেন। মোজাম্মেল হক ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক। অপরদিকে, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হচ্ছেন প্রকৌশলী মিন্টু বেপারী। তার প্রতীক হচ্ছে অটোরিক্সা।

ইউনিয়নের ৯ টি ওয়ার্ডের মোট ৯টি ভোট কেন্দ্রে রয়েছে। এতে প্রায় ১৫ হাজার ভোটার তাদের প্রছন্দের প্রাথীকে ভোট প্রদান করবেন ।

সারি সারি ঝুলানো পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে হলদিয়া ইউনিয়নের রাস্তা-ঘাটসহ গুরুত্বপূর্ণ সকল স্থান। রাস্তার পর রাস্তায় যেদিকেই চোখ পড়বে দেখা যাবে এই দৃশ্য। সব মিলিয়ে যেন নির্বাচন জ্বরে আক্রান্ত প্রাচীন এই জনপদ। চায়ের দোকানসহ সবখানেই নির্বাচনী আলাপ। জমজমাট নির্বাচনী পরিবেশে কদর বেড়েছে ভোটারদের। তাই সম্ভাব্য জনপ্রতিনিধিদের কাছে প্রত্যাশাও তুলে ধরতে পারছেন তারা। তাই বেজায় খুশি সাধারণ ভোটাররা। ভোটারদের দাবি, যারা ইউনিয়নের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করতে পারবে তাদেরকেই ভোট দিবেন তারা।

হলদিয়া ইউনিয়নের উপনির্বাচনে দুই প্রাথীই সর্ব শক্তি নিয়োগ করেছে নির্বাচনী প্রচারণায়। এ কারণে সবার দৃষ্টি এই উপনির্বাচনের দিকে। এখানে পাল্টাপাল্টি নানা অভিযোগ উঠলেও পদ্মা তীরের গোটা এলাকায় এখন নির্বাচনী জোয়ার বইছে।

উপজেলা নির্বাচনী কর্মকর্তা রিটানিং অফিসার ফারজানা রহমান জানান, নির্বাচনের সব ধরনের প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। ঢাকা থেকে ব্যালট পেপারসহ নির্বাচন সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় সব মালামাল চলে এসেছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিও রয়েছে স্বাভাবিক ।

উল্লেখ্য গত ২০ এপ্রিল হলদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহসিন গাজীর অকাল মৃত্যুতে শূন্য হয়ে পড়ে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদটি।

বাংলা সংবাদ

Comments are closed.