ঝড়ে বিদ্যালয় ভবন ভেঙ্গে ক্লাস বন্ধ: উন্মুক্ত মাঠে চলছে পাঠদান

টঙ্গীবাড়ী উপজেলার চাঠাতি পাড়া শেখ কাবেল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের টিন ও কাঠ দিয়ে তৈরী ভবন ঝড়ে ভেঙ্গে গেছে। ফলে বাধ্য হয়ে ভাঙ্গা বিদ্যালয় ভবনের সামনের মাঠে চলছে ছাত্রছাত্রীদের পাঠদান। বৃহস্পতিবার রাতে টঙ্গীবাড়ী উপজেলায় কাল বৈশাখী ঝড় বয়ে গেলে অনেক গাছ পালা ও কাচা ঘরের পাশাপাশি উক্ত বিদ্যালয়ের চাল ধসে যায় এবং বেড়ার টিন উড়ে যায়। ফলে বিদ্যালয়টিতে ক্লাস নেওয়া সম্ভব হচ্ছেনা।

সরেজমিনে শনিবার সকালে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয় ভবনটি মধ্যেস্থানের ৪টি ক্লাস রুমের চাল ঝড়ে ভেঙ্গে ধসে পরেছে। পাশের পিছনের বেড়ার টিন ঝড় উড়িয়ে নিয়ে গেছে। ছাত্র-ছাত্রীদের মাঠের মধ্যে ব্রেঞ্চের উপর বসিয়ে এক শিক্ষক ও শিক্ষিকা পাঠদান দিচ্ছে। ঠিক ওই মুহুর্তে আকাশে ঘনিয়ে আসছে মেঘ। শিক্ষার্ত্রী ও শিক্ষকরা পাঠ কার্যক্রমের পাশাপাশি আকাশের দিকে তাকাচ্ছে।

জানাগেছে ১৯৯৫ সালে টিন ও কাঠ দিয়ে বিদ্যালয়ের এ ভবনটি নির্মান করা হয়। দির্ঘদিন যাবৎ জরার্জিন অবস্থায় ওই ভবনেই চলছিল প্রায় ৩শত জন ছাত্র-ছাত্রীর পাঠদান। জরাজির্ন ভবনের মধ্যে কয়েকবছর যাবৎ এসএসসি পরিক্ষায় ভালো ফলাফল করে আসছিলো বিদ্যালয়টি। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতে কাল বৈশাখী ঝড়ে বিদ্যালয়টি ভেঙ্গে যাওয়ায় বিপাকে পরেছে ওই বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষকবৃন্দ।

ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কবির হোসেন জানান, দির্ঘদিন যাবৎ একটু বৃস্টি হলেই বিদ্যালয় ভবনের ভিতরে পানি পরতো। জরার্জিন ভবনটি বৃহস্পতিবার ঝড়ে ভেঙ্গে যাওয়ায় বাধ্য হয়ে খোলা-আকাশের নিচে পাঠদান দিচ্ছি। কিন্তু এই মৌসুমে রৌদ্রের যে প্রখরতা তাছাড়া ঘন ঘন বৃস্টিপাত শুরু হওয়ায় খোলা মাঠেও পাঠদান সম্ভব হবেনা বলে মনে হচ্ছে।

বিক্রমপুর চিত্র

Comments are closed.