লৌহজংয়ে নির্মানকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১০

শনিবার খাস জমিতে কমিউনিটি সেন্টার নির্মানকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষ ককটেল বিস্ফোরন পুলিশ সহ আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১০ জন। জানাযায়, উপজেলার গাওদিয়া ইউনিয়নের বড় মোকাম বাজার সংলগ্ন একটি খাস জমিতে এলাকা বাসির সিদ্বান্ত অনুযায়ী একটি কমিউনিটি সেন্টার নির্মান করতে ইট বালি নিয়ে রাখা হয় জমিতে। শুক্রবার কমিউনিটি সেন্টারের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের কথা ছিলো।

কিন্তু এলাকার অপর পক্ষ জাহিদ দেওয়ান দীর্ঘদিন ধরে এই খাস জমিটি দখল করে ঘর নির্মান করে ভাড়া দিয়ে আসছে। তাই জমিতে কমিউনিটি সেন্টার নির্মানে বাধা প্রদান করেন জাহিদ দেওয়ান গংরা।

এ সময় গাওদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহবুব আলম হিমু শিকদার কমিউনিটি সেন্টারের পক্ষে কথা বলতে গেলে তার উপর হামলা চালায় জাহিদ দেওয়ান, শান্ত, জহির দেওয়ান ও হায়দার গংরা।

হিমুর উপর হামলার খবরটি ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসি একএিত হতে থাকে এর পর বিকেল ৬ টায় ফের হামলা শুরু করে প্রতিপক্ষ দুই গ্রুপে চলে হামলা পালটা হামলা এ সময় খবর পেয়ে লৌহজং থানার পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌছে পুলিশের উপস্থিতিতে ককটেল বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটে এতে আহত হয় লৌহজং থানার এস আই হাফিজুর রহমান।

এ ছাড়া ও হামলায় আহত হন মোঃ মাহবুব আলম হিম শিকদারু, সুকেল শেখ, লিটন বেপারী, নয়ন শেখ সহ মোট ১০ জন এদেরকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া ও শিল্পপতি রেজাউল ইসলাম ঢালুর বাড়ির সামনে রাখা শিল্পপতি সাবি সিদ্দিকীর ওয়াল্ড ব্যাংকের গাড়িটি হামলা কারিরা ভাংচুর করেন।

লৌহজং থানার ওসি মোঃ রিয়াজুল হক জানান, হামলার সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে পুলিশ পাঠাই হামলাকারিরা পুলিশকে লক্ষ করে ককটেল বিস্ফোর ঘটায় এতে এস আই হাফিজুর রহমান আহত হন।

এলাকায় শান্তি শৃংক্ষলা বজায় রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এই বিষয়ে পুলিশ বাদি হয়ে একটি এবং গাড়ী ভাংচুরের ঘটনায় একটি সহ ২৬ জনকে আসামী করে মোট দুইটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বাংলাপোষ্ট

Comments are closed.