ঝড়ো বাতাস : পদ্মায় ফেরি চলাচল বিঘ্নিত

ঝড়ো বাতাসে উত্তাল হয়ে উঠেছে পদ্মা। বড় বড় ঢেউ আছড়ে পড়ছে পদ্মার বুকে। সেই সঙ্গে বইছে ঘূর্ণায়মান স্রোত। এতে দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার যোগাযোগের গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌ-রুটে ফেরি চলাচল করছে ঝুঁকি নিয়ে। বিঘ্নিত হচ্ছে ফেরি ও অন্যান্য নৌযান চলাচল।

গত তিন দিনের মতো বৃহস্পতিবারও ঝড়ো বাতাস ও বড় বড় ঢেউয়ের ফলে পদ্মা নদী উত্তাল থাকায় দিনভর ফেরি চলাচল বিঘ্নিত হয়েছে। ফেরিগুলোকে গন্তব্যে যেতে নির্দিষ্ট সময়ের চেয়ে ঘণ্টাখানেক সময় বেশি লাগছে।

যাত্রীরা সঠিক সময়ে নিজ গন্তব্যে যেতে না পেরে নানা দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। সেই সঙ্গে সময় বেশি লাগার কারণে জ্বালানি খরচও বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসির মাওয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক গিয়াসউদ্দিন পাটোয়ারী বাংলানিউজকে জানান, শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌ-রুটে চলাচলরত ১৬টি ফেরির মধ্যে বৃহস্পতিবার ১৫টি ফেরি চলাচল করছে।

ঝড়ো বাতাসে বড় বড় ঢেউ দেখা দেওয়ায় উত্তাল রয়েছে পদ্মা নদী। এ কারণে শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌ-রুটে ফেরি চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। উভয়ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া ফেরিগুলো পৌঁছাতে সোয়া এক ঘণ্টা থেকে দেড় ঘণ্টা লাগলেও বর্তমানে দুই থেকে আড়াই ঘণ্টা সময় লাগছে।

শিমুলিয়া ঘাট সূত্র জানায়, ঝড়ো বাতাসে পদ্মা নদী উত্তাল থাকলেও নৌ-রুটে চলাচলরত যাত্রীবাহী লঞ্চ ও সি-বোটগুলো ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও সন্ধ্যার পরও সি-বোট চলাচল করার অভিযোগ রয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Comments are closed.