ফসল উৎপাদনের জন্য মাটিতে জৈব সার প্রয়োজন

মুন্সীগঞ্জে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহা পরিচালক
শেখ রতন: কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহা পরিচালক এ.জেড.এম মমতাজুল করিম বলেন, মানুষের বেঁচে থাকার জন্য শরীরে যেমন রক্তের প্রয়োজন, তেমনি ফসল উৎপাদনের জন্য মাটিতে জৈব সার তেমন প্রয়োজন। কৃষি অফিস থেকে যেসব পরামর্শ আসে তা কৃষকদের মঙ্গলের জন্য অবশ্যই ভাবতে হবে।

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার আনাম কোল্ড স্টোরেজ অডিটরিয়ামে সিরাজদিখান উপজেলার কৃষকদের নিয়ে মঙ্গলবার বিকেল ৩ টার দিকে মত বিনিময় করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহা পরিচালক এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, বীজের জন্য আলাদা ১০ হাজার স্কয়ার ফিটের একটি জায়গা প্রতিটি কোল্ড স্টোরেজে বরাদ্যের ব্যাপারটি বিবেচনা করতে হবে। এর সাথে বিদ্যুতের সর্বরাহ নিশ্চিত করতে হবে। বস্তাপ্রতি ভাড়া কমানো অতি জরুরী। বিভিন্ন সেমিনার ও মিটিং করে অদক্ষ্য কৃষকদের দক্ষ করার দাবীও ফুটে উঠে তার বক্তব্যে।

এ সময় সিরাজদিখান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ.জেড.এম. মমতাজুল করিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) সৈয়দ খোরশেদ জাফরী, ঢাকা অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কাজী নুরুল ইসলাম, মুন্সিগঞ্জ জেলার উপ পরিচালক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আব্দুল আজিজ, মুন্সীগঞ্জ জেলার প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান, মুন্সীগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত উপপরিচালক (শস্য) মো. কামরুল ইসলাম, সিরাজদিখান উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আ. মতিন হাওলাদার, আনাম কোল্ড স্টোরেজের ম্যানেজার মো. শহিদুল ইসলাম পারভেজ, সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ, সিরাজদিখান উপজেলার উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. হাবিব উল্লাহ, উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মোশারফ হোসেন, উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, উপ সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা, উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. সাফায়েত হোসেন প্রমুখ।

এর আগে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহা পরিচালক মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর, সিরাজদিখান, টঙ্গিবাড়ি, লৌহজং ও সদরে মত বিনিময় ও কৃষি জমি পরিদর্শন করেন।

টা্ইমটাচনিউজ

Comments are closed.