যুব সমাজের উদ্যোগে নির্মিত : টঙ্গীবাড়ীতে শহীদ মিনারে পূস্পার্ঘ অর্পণ

টঙ্গীবাড়ী উপজেলার ধামারণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে স্থানীয় যুব সমাজের উদ্যোগে নির্মিত শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রুদ্ধাঞ্জলি জানিয়েছে গ্রামবাসী ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ধামারণ গ্রামের সাইদুল শেখ, জসিম শেখ ও আবু সাঈদের উদ্যোগে ও নিজেদের আর্থিক খরচে শহীদ মিনার নির্মাণ করেন। এর মাধ্যমে শনিবার এই প্রথম ধামারণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক ও ধামারণ গ্রামবাসী ফুলের তোড়াসহ পূস্পার্ঘ অর্পণ করে ৫২’র ভাষা আন্দোলনে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রুদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করেন।

স্থাণীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. তোফাজ্জাল হোসেন জানান, ধামারণ গ্রামের যুবসমাজের উদ্যোগে ধামারণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়। এর ফলে ধামারনবাসী দীর্ঘ বছর পর এই প্রথম নিজ গ্রামের বিদ্যালয়ে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করলেন।

শহীদ মিনার নির্মাণে যুক্ত মো. জসিম শেখ জানান, মহান একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে প্রভাত ফেরির পরই নতুন নির্মিত শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রুদ্ধাঞ্জলি জানানো হয়।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মফিজ হাওলাদার, সাবেক সভাপতি মতিউর রহমান সিকদার, প্রধান শিক্ষিকা নাজমা বেগম, আওয়ামীলীগ নেতা তোফাজ্জল হোসেন, শহীদ মিনার নির্মাণে যুক্ত দুল শেখ, জসিম শেখ ও আবু সাঈদসহ যুব সমাজ, বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও গ্রামবাসী পর্যায়ক্রমে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রুদ্ধাঞ্জলি করেন।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য ও মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কাজী দীপু জানান, যুব সমাজের উদ্যোগে প্রশংসনীয়। ধামারণ গ্রামে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শহীদ মিনার নির্মাণের উদ্যোক্তা ও আর্থিক সহায়তাকারীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

বিক্রমপুর চিত্র

Comments are closed.