মোল্লাকান্দির মাকহাটিতে প্রতিপক্ষের হামলায় আ’লীগ নেতা জখম

মুন্সীগঞ্জের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের মাকহাটি গ্রামে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক লিটন সিকদারকে (৪৮) কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এতে তার ডান হাতে তিনটি আঙ্গুল ঝুলে হয়েছে।

শুক্রবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাত সাতটার দিকে সদরের মাকহাটি গ্রামে প্রতিপক্ষ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও পরাজিত ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহআলম মল্লিক গ্রুপের সঙ্গে পূর্ব বিরোধের জের ধরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত লিটন সিকদারকে প্রথমে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ও পরে ঢাকার পঙ্গু হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা রিপন হোসেন পাটোয়ারী বাংলানিউজকে জানান, ইউপি নির্বাচনে পরাজয়ের পর থেকে আওয়ামী লীগ নেতা শাহআলম মল্লিকের সঙ্গে তার বিরোধ সৃষ্টি হয়। এই বিরোধের জের ধরে রাত সাতটার দিকে প্রতিপক্ষ শাহআলম মল্লিক গ্রুপের রুহুল আমিন, কামালসহ সন্ত্রাসী বাহিনী লিটন সিকদারের ওপর অতর্কিতে হামলা চালান। এ সময় তারা শরীরের বিভিন্ন স্থানে কোপাতে শুরু করলে লিটন বাধা দিতে গেলে একটি কোপে তার ডান হাতের তিনটি আঙ্গুল ঝুলে যায়।

খবর পেয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের ফকির ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফসারউদ্দিন ভূঁইয়া হাসপাতালে তাকে দেখতে যান।

জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও পরাজিত ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহআলম মল্লিক এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মোল্লাকান্দি ইউনিয়নে বর্তমানে আমার কোনো গ্রুপ নেই।

সদর থানার দায়িত্বরত কর্মকর্তা সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. নজরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় রাত ১০ পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ দাখিল হয়নি।

গত ইউপি নির্বাচনের পর থেকে সদরের চরাঞ্চলের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। ফলে গত কয়েক বছরে দুই গ্রুপের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষ হয়।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Comments are closed.