জয়ের প্রত্যাশা : ২ সাবেক ক্রিকেটার

আফগানিস্তানের বিপক্ষে বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায় মাঠের লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এশিয়া কাপে বাংলাদেশকে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসী আফগানিস্তানের চোখে মুখে স্বপ্ন বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই তারা টেস্ট খেলুড়ে এই দেশকে হারাবে। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের কণ্ঠে সরাসরি কিছু না থাকলেও তারা ভাল ক্রিকেট খেলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। ম্যাচ শুরুর আগেরদিন বাংলাদেশ ও আফগাস্তিানের ম্যাচ নিয়ে সাবেক দুই ক্রিকেটার ফারুক আহমেদ ও আতাহার আলী খান কথা বলেছেন দ্য রিপোর্টের সঙ্গে।

ফারুক আহমেদ (সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমান প্রধান নির্বাচক) : জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার ফারুক আহমেদ। এখন তিনি জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচকও। বুধবারের ম্যাচ নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘আফগানিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের ম্যাচে তেমন কোনো সমস্যা হওয়ার কথা নয়। বাংলাদেশ দল বেশ আগেই ব্রিসবেনে গেছে। আমি বলব আমাদের স্ট্রেন্থ অনুযায়ী আমরা অবশ্যই ভাল দল। ক্যানবেরার উইকেটটি ভাল ব্যাটিং উইকেট। এই উইকেটে আমি ২৬০-৭০ রান আশা করি। এটা আমাদের জন্য ভাল ফাইটিং স্কোর হবে। এই রান করতে পারলেই বাংলাদেশ আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় পাবে।’

কালকের ম্যাচের দলটা কেমন হতে পারে এ প্রশ্নে ফারুক বলেছেন, ‘এই মুহূর্তে টিম কন্ডিশন কেমন হবে এটা বলা কঠিন। আমার মনে হয় আফগানিস্তানের বিপেক্ষ সেরা ক্রিকেট খেলতে যেমন দল গড়া উচিৎ তেমনই দল গড়বে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট। তারা সেখানকার উইকেট-আবহাওয়া দেখে সিদ্ধান্ত নেবে কেমন দল আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলবে।’ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘আমি চাই আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় দিয়ে বিশ্বকাপটা শুরু হোক। একটা ভাল জয় দিয়ে যা আমাদের পুরো টুর্নামেন্টে ভাল খেলতে উজ্জীবিত করবে।’

টানা ম্যাচ হেরেছে। মূল পর্বে খেলতে নামার আগে এটা দলের জন্য চাপ কিনা এ প্রশ্নে ফারুক বলেছেন, ‘বিশ্বকাপ মানেই চাপ। এখানে চাপকে জয় করেই ম্যাচ জিততে হয়। চাপে থাকলেই খেলোয়াড়দের সেরাটা বের করে আনতে সুবিধা হয়। আমাদের ভাল খেলেই জিততে হবে। খারপা খেলে তো আর জেতা যাবে না। আফগানিস্তানও এখানে আসছে জয়ের জন্যই। এশিয়া কাপে তারা আমাদের হারিয়েছে। তাই স্বাভাবিক ভাবেই তাদের আত্মবিশ্বাস একটু বেশীই থাকবে। আমার মনে হয় আমরা আমাদের স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারলেই জিতব।’

আতাহার আলী খান (সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমান ধারাভাষ্যকার) : জাতীয় ক্রিকেট দলর সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমানে ধারাভাষ্যকার আতাহার আলী খান। তিনি বলেছেন, ‘১৬ কোটি মানুষের একটাই প্রত্যাশা বাংলাদেশকে কোয়ার্টার ফাইনালে দেখার। সব কিছু নির্ভর করে আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটার ওপর। প্রথম ম্যাচটা শুরুটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আফগানিস্তানের সঙ্গে এশিয়া কাপে আমরা হেরে গিয়েছিলাম। আমাদের এ বিষয়টা মাথায় রাখতে হবে। আমাদের যে দল বিশ্বকাপে গেছে তাদের সামর্থ্য আছে আফগানিস্তানকে হারানোর। এটা সম্ভব আমরা যদি ভাল ক্রিকেট খেলি।’ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘সবচেয়ে বড় কথা ওপেনারদের শুরুটা গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম ১০ ওভারে আমাদের কোনো উইকেট পড়া যাবে না। নতুন বলটা ওপেনারদেরই খেলে দিতে হবে। সবকিছু নির্ভর করছে ওই দিন কিভাবে আমরা নিজেদের ব্যবহার করতে পারি তার ওপর।’

পেস আক্রমণ নিয়ে আতাহার আলী বলেছেন, ‘আমাদের নতুন পেসার তাসকিন অসাধারণ পারফরম্যান্স করছে। অস্ট্রেলিয়া কন্ডিশনে তাসকিন এই সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারবে। এ ছাড়া মাশরাফি দলের অধিনায়ক। ও ভাল ফর্মে আাছে। অনুশীলন ম্যাচগুলো ভাল খেলেছে। আমি মনে করি ওই কন্ডিশনে মাশরাফিও মানিয়ে নিতে পারবে। আমি জানি না এই কন্ডিশনে ২ জন পেস বোলার খেলানো হবে কিনা। রুবেল হোসেন-আল আমিন ভাল বোলার। তবে আমার নজর মাশরাফি এবং তাসকিনের ওপর থাকবে।’

দলের শক্তিশালী দিক নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমাদের শক্তিশালী জায়গা হচ্ছে স্পিন আক্রমণ। আমাদের সৌভাগ্য ৩ ফরম্যাটের ক্রিকেটে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার আমাদের দলে খেলছেন। সাকিবের কাছে ১৬ কোটি মানুষের আশা অনেক। অবশ্যই আমি দেখতে চাইব টপঅর্ডার ব্যাটে রান পাবে। তামিম প্রথম ম্যাচ না খেললে পরের ম্যাচগুলোতে কন্টিবিউশন করবে।’

দ্য রিপোর্ট

Comments are closed.