সেরাকণ্ঠের পঞ্চম পর্ব : কাতারের দোহায় বাংলাদেশের সন্ধ্যা

সেরাকণ্ঠের পঞ্চম পর্বের বিজয়ীরা প্রিয় মা এবং মাতৃভূমির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে যখন অনুষ্ঠানের শুরু, কাতারের দোহায় তখন সূর্য ডুবি ডুবি করছে। চারপাশে অন্ধকার হয়ে আসতেই জ্বলে উঠল পুরো স্টেডিয়াম এবং সুসজ্জিত মঞ্চ। আলোকিত এই সন্ধ্যায় যেন পুরো বাংলাদেশ উড়ে এল চার হাজার কিলোমিটার পেরিয়ে কাতারের দোহায় আলআরাবি স্টেডিয়ামের মুক্ত আঙিনায়। বিকেল ৫টা থেকে রাত প্রায় ১১টা পর্যন্ত সেরাকণ্ঠের প্রতিযোগী এবং বাংলাদেশের নামকরা শিল্পীদের বৈচিত্র্যময় ও মুগ্ধকর পরিবেশনায় হাসি আনন্দে মুখরিত সময় পার করেছেন কাতারপ্রবাসী বাংলাদেশিরা। আয়োজকদের মতে, প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বাংলাদেশের অর্থনীতিতে যে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে, সেই কৃতজ্ঞতায় এ বর্ণিল আয়োজন প্রবাসীদের প্রতি সশ্রদ্ধ উপহার।

বিকেল চারটায় গেট খোলার পরপরই ঢল নামে কাতারপ্রবাসীদের। কানায় কানায় ভরে যায় স্টেডিয়ামের সংরক্ষিত এলাকা। কেউ সবান্ধব, কেউ সপরিবারে। বাংলাদেশের তারকা শিল্পীদের সরাসরি পরিবেশনার পুরো সময়টা করতালি আর স্লোগানে মুখর ছিল আলআরাবি স্টেডিয়াম।

হঠাৎ মঞ্চের পেছনে পর্দায় ভেসে এল নন্দিত কথাসাহিত্যিক প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের ছবি। মঞ্চে তখন উপস্থিত মেহের আফরোজ শাওন। তিনি গাইলেন হুমায়ূন আহমেদের লেখা জনপ্রিয় কয়েকটি গান। সঙ্গে ছিলেন সুবীর নন্দীও।

জনপ্রিয় শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে মঞ্চে দেখে অভিভূত দর্শক দাঁড়িয়ে গেলেন একসঙ্গে। ‘এক আকাশের তারা তুই’ গানটি তিনি শুধু একা নন, গাইলো পুরো স্টেডিয়ামে সমবেত বাংলাদেশিরা। দর্শকদের মাতাতে এর আগে মঞ্চে আসেন এস আই টুটুল, অপু বিশ্বাসসহ অনেকেই। ছিল দৃষ্টিনন্দন নৃত্য পরিবেশনাও।

মরুর বুকে জমকালো এ আয়োজনে বাদ যায়নি ইয়াল্লা হাবিবীর মতো আরবি জনপ্রিয় গানও। গানের তালে তালে বাংলাদেশি নৃত্যশিল্পীদের অপূর্ব পরিবেশনায় মুগ্ধ বেশ কয়েকজন কাতারি পুলিশও তাদের মোবাইলে ভিডিও করে নেন অবাক বিস্ময়ে।

সেরাকণ্ঠের পঞ্চম পর্বের এবারের আয়োজনে প্রথম হয়েছেন আবদুল আউয়াল চৌধুরী তারেক। প্রথম রানারআপ প্রান্ত (চট্টগ্রাম), যুগ্ম রানারআপ হয়েছেন নাবিলা (চট্টগ্রাম) ও হৃদয় (মুন্সিগঞ্জ)। সেরাকণ্ঠের বিচারকেরা সেরাদের সেরা তারেকের মাথায় মুকুট পরিয়ে দেন। অন্য অতিথিরা বিজয়ীদের হাতে চেক তুলে দেন।

প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সাজ্জাদ শরিফ বক্তৃতায় বলেন, এই প্রথম চ্যানেল আইয়ের কোনো রিয়েলিটি শোর গ্র্যান্ড ফিনালে বাংলাদেশের সীমানা পেরিয়েছে। একই সঙ্গে প্রথম আলোও বাংলাদেশের বৃত্ত ছেড়ে সুদূর আরবের বুক থেকে প্রকাশিত হচ্ছে মাস কয়েক ধরে। এসবের মাধ্যমে মূলত বাংলাদেশ ধাপে ধাপে এগিয়ে যাচ্ছে সামনের দিকে। বিস্তৃত হচ্ছে বিশ্বময়।

চ্যানেল আইয়ের পক্ষে বক্তব্য দেন ফরিদুর রেজা সাগর, শাইখ সিরাজ এবং এম এ মুকিত। সেরাকণ্ঠের স্পনসর প্রতিষ্ঠানের পক্ষে বক্তব্য দেন হারুনুর রশিদ। মরুর বুকে এক টুকরো বাংলাদেশ উপহার দেওয়ায় চ্যানেল আই এবং ফিজআপ কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত সৈয়দ মাসুদ মাহমুদ খোন্দকার।

প্রথম আলো