শ্রীনগরে সপ্তাহের ব্যবধানে গনধর্ষণ সহ ৪ টি ধর্ষণের ঘটনায় জনমনে ক্ষোভ

আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে এক সপ্তাহের ব্যবধানে একটি গনধর্ষণ সহ ৪টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ৪টি ধর্ষণের ঘটনায় শ্রীনগর থানায় তিনটি মামলায় ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অপর একটি ধর্ষণের ঘটনায় ইউনিয়ন পরিষদে সালিশ মিমাংসায় বসে টাকা-পয়সা নিয়ে বনিবনা না হওয়ায় উঠে যায় সালিশদাররা। উপজেলা পরিষদের পঞ্চাশ গজের মধ্যে গনধর্ষণ সহ পর পর ৪টি ধর্ষণের ঘটনায় জন মনে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। পুলিশ জানায়, গত ৫ ডিসেম্বর রাত সাড়ে নয়টার দিকে উপজেলা পরিষদ থেকে পঞ্চাশ গজ দুরে রাজ্জাক মিয়ার ভাড়াটিয়া এক নারী (২৬) পাশের বাসার খোকন মিয়ার স্ত্রীর সাথে বসে টিভি দেখছিল। এসময় ওই এলাকার দিপক মেম্বারের ছেলে জাকির হোসেন জ্যাকি (২৩), ফখরুলের ছেলে বুলেট (২৫), চান্দু মন্ডলের ছেলে তাপস (২২), বলাই মন্ডলের ছেলে সম্রাট (২৪) ও অজ্ঞাতনামা আরো দুজন মিলে তাকে খোকন মিয়ার স্ত্রীর সামনে থেকে টেনে হিচঁড়ে পার্শ্ববর্তী দেলোয়ার ম্ল্লোার নির্মানাধীন ছয়তলা বিল্ডিংয়ের তিন তলায় নিয়ে রাতভর ধর্ষন করে। বখাটেরা শেষ রাতের দিকে ঐ নারীকে হত্যার হুমকি দিয়ে এলাকা থেকে তাড়িয়ে দেয়। পরদিন শনিবার সকালে সে মিডফোর্ড হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নিয়ে কেরাণীগঞ্জ গোলচত্ত্বর এলাকায় এক আতœীয়ের বাসায় আশ্রয় নেয়। গত বুধবার সে শ্রীনগর থানায় মামলা করতে আসে।স্থানীয়রা জানায়,শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সের এক নার্সের আতœীয় হিসাবে মেয়েটি এই এলাকায় আসে। গত দুই মাস আগে ওই এলাকার রাজ্জাক মিয়ার বাসাটি ভাড়া নেন। পরে মেয়েটি শ্রীনগর বাজারের একটি ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারে চাকুরী নেয়। ঘটনার পরদিন শ্রীনগর জোনের ডিআইও এসআই শহিদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে টাকা পয়সা নিয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন। এব্যাপারে শহিদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে তথ্য সংগ্রহের বিষয়টি স্বীকার করলেও টাকা নেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেণ।

এর আগে গত ৪ নভেম্বর রাতে বালাসুর নতুন বাজার এলাকার গ্রাম্য ডাক্তার মফিজুল ওই এলাকার এক গৃহবধুকে স্কুলের ভেতরে নিয়ে ধর্ষণ করে। এঘটনায় রাঢ়িখাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন-অর রশিদ এলাকর সালিশ পার্টির সদস্যদে নিয়ে গত ৯ ডিসেম্বর ইউনিয়ন পরিষদে সালিশ মিমাংসায় বসে। সালিশদাররা ঘটনার সত্যতা পেয়েও টাকা পয়সা নিয়ে বনিবনা না হওয়ায় আগামী শনিবার দিন সিদ্ধান্ত দেওয়ার কথা বলে উঠে যায়।

গত ২ ডিসেম্বর রাঢ়িখাল হাতারপাড়া এলাকার চার বছরের এক মেয়ে শিশুকে ধর্ষণ করে এক বখাটে। ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে মুমুর্ষ অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এঘটনায় পুলিশ ধর্ষক রাজিব (২০) কে গ্রেপ্তার করে ।

গত ৩০ নভেম্বর উপজেলার আলামিন বাজারে এক স্কুলছাত্রীকে ষ্টুডিওতে আটকে রেখে ধর্ষণ করে ঐ প্রতিষ্ঠানের মালিক। এঘটনায় ধর্ষক রাজিব ওরফে রাজু (২৫) ও তার সহযোগী শাহাবুদ্দিন (২৪))কে গ্রেপ্তা করে পুলিশ। কাজী ফজলুল হক উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রী ওই দিন বেলা এগারটার দিকে পরীক্ষার প্রবেশপত্র লেমিনেটিং করার জন্য আলামিন বাজারের রাজু ষ্টুডিওতে গেলে সেখানে ষ্টুডিওর মালিক রাজু ও তার দুই সহযোগী কৌশলে মেয়েটিকে ষ্টুডিওর ছবি তোলার রুমে নিয়ে যায়। রুমে নিয়ে প্রায় দুইঘন্টা ধরে মেয়েটিকে আটকে রেখে রাজু তাকে ধর্ষন করে ও মোবাইল ফোনে ধর্ষনের দৃশ্য ধারণ করে। এঘটনায় ঐ স্কুলছাত্রীর নানা বাদী হয়ে ধর্ষণ ও ধর্ষণে সহায়তার অভিযোগে তিনজনকে আসামী করে শ্রীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। গ্রেপ্তারকৃত রাজু কাঠাল বাড়ি এলাকার আলোচিত ফাইভ মার্ডার ঘটনায় নিহত মনোয়ার আলী চেয়ারম্যানের ভাতিজা। তার বাবার নাম আনোয়ার আলী। শাহাবুদ্দিনের বাড়ি জগন্নাথপট্টি গ্রামে। তার বাবার নাম আ ঃ হক।

বিক্রমপুর চিত্র