মোবাইলে কথা নিয়ে ঝগড়া, নববধূ আইরিনের ‘গায়ে আগুন’

মোবাইল ফোনে কথা বলাকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার জের ধরে রাজধানীতে এক নববধূ গায়ে আগুন ধরিয়ে ‘আত্মহত্যা’ করেছেন বলে তার স্বজনরা জানিয়েছেন। শনিবার সকালে স্বজনরা গুরুতর দগ্ধ আইরিন আক্তারকে (২৪) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে সন্ধ্যায় কিছুক্ষণ পর তিনি মারা যান বলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মোজাম্মেল হক জানিয়েছেন।

আইরিনের গ্রামের বাড়ি বিক্রমপুর জেলার শ্রীনগরে। দুই ভাই এক বোনের সংসারে তিনি ছিলেন মেজো।

একমাস আগে দোকান কর্মচারী আসাদুজ্জামান ঝন্টুর সঙ্গে বিয়ে পর দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের ইস্পাহানি রোডের ৬ নম্বর গলির একটি বাসায় সংসার শুরু করে এই নব দম্পতি বলে নিহতের ছোটভাই রাজীব বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান।

তিনি বলেন, “দুলাভাই আমাদের বলছে আপা মোবাইল ফোনে অতিরিক্ত কথা কইতো। দুলাভাই নিষেধ করার পরও কথা শুনতো না। এইডা নিয়া শুক্রবার রাতে আপা আর দুলাভাইয়ের ঝগড়া হইলে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আপা নিজের শরীরে কেরোসিন ঢাইলা আগুন ধরায়ে দিসে।

“এরপর তারে ঢাকা মেডিকেল আনার পর সন্ধ্যায় সে মারা গেসে।”

রোববার সকালে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ বিক্রমপুর নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানান রাজিব।

আইরিনের স্বামী আসাদুজ্জামান ঝন্টু জুরাইনের আলম মার্কেটে একটি পোশাকের দোকানে কাজ করেন।

বিডিনিউজ

Comments are closed.