হাটলক্ষ্মীগঞ্জে লাইসেন্সপ্রাপ্ত মদের দোকান সিলগালা

শহরে একটি চোলাই মদের দোকান সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। এ সময় তিন মদ বিক্রেতাকে আটক করে এক লাখ টাকা জরিমানা আদায় ও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শহরের হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকায় বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কান্ট্রি লিকার শপ নামে লাইসেন্সপ্রাপ্ত ওই বাংলা মদের দোকানে অভিযান চালান ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মদের দোকানের মালিক নাসির হাসান রবিন (৪০), তার সহযোগী আশিকুর রহমান (৩৯) ও আব্দুল মালেককে (৩৬) আটক করে ওই জরিমানা ও কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কে এম আল-আমিন। এ ছাড়া দেলোয়ার হোসেন দেলু (৩০) নামে আরেক সহযোগীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে ছেড়ে দেওয়া হয়।

লাইসেন্সপ্রাপ্ত দোকানে অভিযানের কারণ সম্পর্কে ম্যাজিস্ট্রেট জানান, ওই দোকানে অনুমোদিত আড়াই হাজার লিটারের বাইরে অতিরিক্ত ১০০ লিটার মদ মজুদ ছিল। আবার পানীয় মিশিয়ে মদে ভেজাল দেওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেছে। এতে ভোক্তা অধিকার ক্ষুণ্ন হয়েছে। এই দায়ে মদের দোকানটি সিলগালা করা হয়। আটকদের থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

অভিযান পরিচালনার সময় র‌্যাব-১১-এর ডিআইজি আবদুল মান্নান ও র‌্যাব সদস্যসহ স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

দ্য রিপোর্ট

=========

মুন্সীগঞ্জে চোলাই মদের দোকান সিলগালা

মুন্সীগঞ্জ শহরের হাটলহ্মীগঞ্জ এলাকার সরকার অনুমোদিত একমাত্র চোলাই মদের দোকান সিলগালা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এসময় ৩ মদ বিক্রেতাকে আটক, ১ লাখ টাকা জরিমানা ও ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টায় “কান্ট্রি লিকার সপ” নামে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক লাইসেন্সপ্রাপ্ত বাংলা মদের দোকানে অতিরিক্ত মদ বিক্রয় ও মদে ভেজাল করার খবর পেয়ে দোকানে অভিযান চালিয়ে এ সিলগানা ও কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।

র‌্যাব-১১ সূত্রে জানা যায়, আটককৃতরা হলেন, মদের দোকান মালিক নাসির হাসান রবিন (৪০), তার সহযোগী মদ বিক্রেতা আশিকুর রহমান (৩৯) ও আব্দুল মালেক (৩৬)। আটককৃতদেরকে জরিমানা ও কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করেন আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কেএম আল আমিন।

অন্যদিকে ১’শ লিটার বাংলা মদ জব্দ ও দেলোয়ার হোসেন দেলু (৩০) নামে অপর আরেক মদ বিক্রেতাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে ছেড়ে দেওয়া হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কেএম আল-আমিন জানান, ওই বাংলা মদের দোকানে অতিরিক্ত পরিমাণের মদ মজুদ করা এবং পানি মিশ্রিত করে মদে ভেজাল করারও প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এতে ভোক্তা অধিকার ক্ষুন্ন করার দায়ে ওই বাংলা মদের দোকান সিলগালা করা হয়। এ সময় ৩ মদ বিক্রেতাকে ১ লাখ টাকা জরিমানাসহ ৬ মাসের সশ্রম জেল হাজতবাসের দণ্ড প্রদান করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

শীর্ষ নিউজ

Comments are closed.