গজারিয়ায় মেঘনার বালুচরে আটকেপড়া লঞ্চ ১১ ঘণ্টা পর উদ্ধার

মুন্সীগঞ্জের মেঘনার বালুরচরে সোমবার ভোরে ঘন কুয়াশার কবলে আটকা পড়ে এমভি আঁচল-৪ নামে একটি ত্রিতল লঞ্চ। জোয়ারের পানিতে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে গজারিয়া উপজেলার ইস্মানিরচর গ্রামসংলগ্ন মেঘনাপাড়ের বালুরচর থেকে লঞ্চটি উদ্ধার করা হয়েছে।

ছারছিনা পীরের দরবার শরীফ ফেরত পাঁচ শতাধিক ভক্তকে নিয়ে রবিবার রাতে লঞ্চটি নারায়ণগঞ্জ লঞ্চ টার্মিনালের উদ্দেশে পিরোজপুর থেকে ছেড়ে আসে।

লঞ্চের মাস্টার মজিবুল হক জানান, কুয়াশার কারণে নদীপথ হারিয়ে সোমবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার ইস্মানিরচর গ্রামসংলগ্ন মেঘনাপাড়ে বালুরচরে আটকা পড়ে।

ওই সময় জোয়ারের পানি ছিল। কিন্তু আটকে পড়ার ঘণ্টাখানেকের মধ্যে মেঘনায় ভাটা দেখা দেয়। ভাটার কারণে পানি কম থাকায় মেঘনাপাড়ে বালুরচরটি পুরোপুরি জেগে ওঠে।

এতে তাৎক্ষণিক লঞ্চটি উদ্ধারের আশা ছেড়ে দিতে হয় লঞ্চ কর্তৃপক্ষকে। লঞ্চ উদ্ধারে মেঘনার জোয়ারের পানি আসার জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষমাণ থাকেন লঞ্চ কর্মচারী, সুকানি ও মাস্টার।

গজারিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই শাখাওয়াত হোসেন জানান, বিকেল ৩টার দিকে জোয়ারের পানিতে বালু প্লাবিত হলে ত্রিতল লঞ্চটি উদ্ধার করা হয়।

পরে ছারছিনা পীরের দরবার শরীফ ফেরত পাঁচ শতাধিক ভক্তকে নিয়ে নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশে রওনা দেয় এমভি আঁচল-৪ নামে ওই ত্রিতল লঞ্চটি।

দ্য রিপোর্ট