আমরা অভিশপ্ত নই পরাজিত : ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী

আরিফ হোসেন: প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, দীর্ঘ সংগ্রামের মধ্য দিয়ে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। ব্রিটিশ চলে গেছে, পাকিস্থানীরা চলে গেছে। কিন্তু আমরা দেখতে পাই পুজিঁবাদের দৌরাত্ম তখনও ছিল এখনও আছে। তখনকার থেকে এখনকার মানুষ আরো বেশী পুজিঁবাদী, মুনাফালোভী, আতœকেন্দ্রিক, পরস্পর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে। পুজিঁবাদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ নেই। আমরা অতœসমর্পন করেছি। আমরা পরাধীন অভিশপ্ত জনপদের প্রান্তিক জনগোষ্টি ছিলাম। দেশের মানুষ মনে করে আমরা কিছুই করতে পারবোনা। আমরা আসলে অভিশপ্ত নই, পরাজিত। প্রতিনিয়ত পরাজিত হচ্ছি পুজিঁবাদী, ভোগবাদী মূল্যবোধের রাষ্ট্র ব্যবস্থা, সমাজ ব্যবস্থার কাছে। মুক্তিযুদ্ধের এত বড় জয় তার পরও পরাজয় ঘটছে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী আদর্শের কাছে। মুক্তিযুদ্ধের আসল চেতনা ছিল সমাজ বিপ্লবের চেতনা। কিন্তু সাম্প্রদায়িকতার দ্বারা আমরা আচ্ছাদিত হয়ে পড়েছি।

রবিবার দুপুর একটার দিকে শ্রীনগর উপজেলার রাঢ়িখালে স্যার জগদীশ চন্দ্র বসুর ১৫৬ তম জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভার উদ্ভোধক হিসাবে তিনি এসব কথা বলেন। বিজ্ঞান চিন্তা নামে একটি সংগঠন এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে তিনি আরো বলেন,

ব্রিটিশ পরাধীনতার যুগে দেশ প্রেম ছিল। একারণে জগদীশ চন্দ্র বসু, রবীন্দ্রনাথ, প্রফুল্ল চন্দ্রের মতো মেধাবীরা পরাশুনা শেষ করে বিদেশ মুখী হননি। দেশ প্রেমের অভাবে আজ মেধা পাচার হয়ে যাচ্ছে। আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা ইংরেজী, বাংলা, মাদ্রাসা ইত্যাদি মাধ্যমে বিভাজিত। যত শিক্ষা তত বিভাজন। আমাদের প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় গুলো যেসকল বিষয়ে পড়ালেখা করলে সহজে উপার্জন করা যায় সেগুলো শিখায়। আমরা ব্যাক্তিগত ভাবে যত সাফল্য পাচ্ছি তত সংকুচিত হচ্ছি। বিজ্ঞান ও জ্ঞান চর্চার সাংস্কৃতিক পরিবেশ নেই। একারনে জগদীশের বাড়িতে বিজ্ঞানের শাখা খোলা যাচ্ছেনা। আমরা তাকে মনে রাখতে পারছিনা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের এমপি সুকুমার রঞ্জন ঘোষ, প্রধান আলোচক হিসাবে অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. অজয় রায়। ভারত থেকে অংশ নেন রানু ঘোষাল, রুপা বসু, রাজীব শেঠী, নারায়ন ব্যানার্জী।

সরকারী হরগঙ্গা কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ প্রফেসর সুখেন চন্দ্র ব্যানার্জীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান বাদল, সরকারী হরগঙ্গা কলেজের অধ্যক্ষ ড. এস,এম ওয়াহিদুজ্জামান, বিজ্ঞান চিন্তা পরিষদের প্রধান সমন্বয়ক সফিক ইসলাম, পুলিশ সুপার, বিপ্লব বিজয় তালুকদার, শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহানারা বেগম, মুন্সীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মীর নাসির উদ্দিন উজ্জল প্রমুখ।

সভায় বক্তারা স্যার জগদীশ চন্দ্র বসুর জন্ম ও মৃত্যু দিবস জাতীয় ভাবে পালনের দাবী জানান। জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষ্যে জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে জগদীশ চন্দ্র বসুর বাড়ীতে অর্ধ শতাধিক স্টল দিয়ে বিজ্ঞানের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরে।

Comments are closed.