টঙ্গীবাড়ীর রাস্তায় আলু পচাঁর দূগর্ন্ধে পথচারীদের দূর্ভোগ

রাকিবুল হাসান জনি: টঙ্গীবাড়ী উপজেলার টঙ্গীবাড়ী হতে কালিবাড়ি হয়ে দিঘিরপাড় সংযোগ সড়কের ধীপুর গ্রামের সানোয়ারা ও নুর কোল্ড স্টোরেজ এর সামনে ফেলা পচাঁ আলুর গন্ধে পথচারীদের দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। প্রায় ১৫ দিন আগে কোল্ড ষ্টোরেজ কর্তৃপক্ষ তাদের স্টোরে সংরক্ষিত কৃষকের পচেঁ যাওয়া আলু উক্ত রাস্তার পাশে ফেললে এ দূর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। যা দিন দিন ব্যাপক গন্ধ ছড়াচ্ছে।

এতে আশে-পাশের লোকজনসহ রাস্তার পাশের জমিতে আলু চাষী কৃষক ও বহুল যাতায়াতকারী রাস্তায় পথচারীরা চরম বিপাকে পরেছে। পাক-প্রাথমিক শিক্ষার্থীরা ধীপুর ও আশে-পাশের এলাকা হতে রংমেহার পরিক্ষা কেন্দ্রে পরিক্ষা দিতে আসার পথে এ রাস্তায় যাতায়াত করতে গিয়ে দূর্গন্ধের কারনে অসুস্থ হয়ে পরছে। কালিবাড়ি হতে টঙ্গীবাড়ী হয়ে ঢাকায় বাস যাত্রীরা এ পথে যাতায়াত করতে গিয়ে গন্ধে বমি করতে দেখা গেছে। রোগীরা দূগন্ধে আরো বেশি রোগাক্রান্ত হয়ে পরছে। সানোয়ার কোল্ড স্টোরে আলু সংরক্ষনকারী কৃষক শিমুলিয়া গ্রামের রহমান সেখ জানান, এ কোল্ড স্টোরে জেনারেটর না থাকায় প্রতি বছর আমাদের বিপুল পরিমান আলু পচেঁ নষ্ট হচ্ছে। যা মালিক পক্ষ এই রাস্তার পাশে ফেলে এলাকার পরিবেশ নষ্ট করছে। সে আরো জানায়, আমাদের কাছাকাছি অন্য কোল্ড স্টোরেজ না থাকায় বাধ্য হয়ে আমরা উক্ত ষ্টোরে আলু রাখছি।

এলাকাবাসী জানান, উক্ত কোল্ড স্টোরেজ কর্তৃপক্ষ কোন রাকম নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে সারা বছরই রাস্তার পাশে এই সমস্ত পচাঁ ও দূর্গন্ধ আলু ফালাচ্ছে। আমরা বারবার অনুরোধ করার পরেও তারা কোন কর্নপাত করছে না। এ ব্যাপরে সানোয়ারা কোল্ড ষ্টোরেজের ম্যানেজার আব্দুল ছাত্তার জানান, আমরা বারবার নিষেধ করা শর্তেও আলুর বেপারীরা এ সমন্ত পচাঁ আলু রাস্তার পারে ফেলাচ্ছে। কোল্ডিং জেনেরেটর এর ব্যাপারে জানতে চাইলে সে সাংবাদিকদের কোল্ড স্টোরেজে গিয়ে সব ঠিক আছে দেখে আসতে বলে।

বিক্রমপুর চিত্র

Comments are closed.