লৌহজংয়ের কলমা ইউনিয়নের বিএনপি যুবদলের নেতা-কর্মীদের পদত্যাগ

বিএনপির কোষাধ্যক্ষ ও সাবেক স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মিজানুর রহমান সিনহার গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলা কলমা ইউনিয়নের বিএনপির পুরো কমিটি, যুবদল সভাপতি/সম্পাদক, মহিলাদল সভাপতি/সম্পাদক ও জাসাসের সভাপতি/সম্পাদক একযোগে পদত্যাগ করেছেন। থানা যুব দলের এক নেতার স্বেচ্ছাচারিতা ও নেতাকর্মীদের অবহেলা ও মিজানুর রহমান সিনহার কাছে প্রতিকার চেয়ে না পাওয়ার কারণেই এই পদত্যাগের কারণ বলে জানা গেছে।

কলামা ইউপি বিএনপির সভাপতি মো. সুলতান আহাম্মেদ বাচ্চু মাস্টার জানান, থানা যুবদলের সভাপতি হাবিবুর রহমার অপু চাকলাদের স্বেচ্ছাচারিতার মাত্রা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছিল। নেতাকর্মীরে সে কোনো মানুষ বলেই মনে করত না। যাকে তাকে যখন তখন অপমান করত। অন্য একটি দলের এজেন্ট হয়েই সে যুবদলে ঢুকে পড়েছে। তার বাড়ির সবাই অন্য একটি দল করলেও সে বিএনপির ভেতরে ভাঙন ধরাতেই যুবদলে যোগ দিয়েছে।

কিছু দিন আগে সে আমাকেও অপমান করে। এ নিয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধ্যক্ষ ও সাবেক স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মিজানুর রহমান সিনহার কাছে থানা যুবদলের সভাপতি অপু চাকলাদারের বিরুদ্ধে বিচার চেয়েও কোনো প্রতিকার পাইনি। অপমান সহ্য করতে না পেরে সিনহা কলমা ইউনিয়নের বিএনপির মূল কমিটির সভাপতি আমিসহ সবাই মঙ্গলবার পদত্যাগ করেছি। থানা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান খানের কাছে এ পদত্যাগপত্র জমা দেয়া হয়েছে।

এছাড়া ওই ইউনিয়নের যুবদল সভাপতি/সম্পাদক, মহিলা দল সভাপতি/সম্পাদক ও জাসাসের সভাপতি/সম্পাদকও একযোগে পদত্যাগ করেছেন। এ ব্যাপারে থানা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান খান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তারা বিএনপি ছেড়ে যায়নি। স্ব স্ব পদ থেকে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছে। আমরা এটি গ্রহণ করিনি।

যুগান্তর

Comments are closed.