নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও মাওয়ায় রাতেও চলছে সি বোট

যে কোনো দুর্ঘটনা ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঠেকাতে রাতে সি বোট চলাচল নিষেধ থাকলেও নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে মাওয়ায় রাতেও চালাচ্ছে সি বোট। আর এসব অমান্য করে সি বোট চালাতে সহযোগিতা করছে মাওয়া ফাঁড়ির বর্তমান চার্জে থাকা এসআই ইউনুছ। বিকাল সাড়ে ৫টার পর সি বোট চলাচল বন্ধ থাকার কথা থাকলেও এই নিয়মকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে এটাকেই বৈধ নিয়ম বানিয়ে প্রতিদিন বিকাল ৫টার পর থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মাওয়া ঘাট থেকে ১০/১২টি সি বোট এভাবেই প্রশাসনকে ম্যানেজ করে চলাচল করছে।

অভিযোগ উঠেছে এসআই ইউনুছ এসব সি বোট টাকার বিনিময়ে প্রতিনিয়ত চালাচ্ছে। এসব সি বোট থেকে প্রতিদিন ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা তিনি হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে এই দারোগার বিরুদ্ধে। সূত্রে জানা যায়, বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান মাওয়া ঘাট পরিদর্শন করতে আসলে এসময় সন্ধ্যার পরে মাওয়া ঘাট থেকে সি বোট ছেড়ে গেলে মাঝ পদ্মায় এসব সি বোট আটক করা হয়।

এমনভাবে প্রশাসন ম্যানেজ করেই প্রতিদিন মাওয়া ঘাট থেকে ছেড়ে যাচ্ছে এসব সি বোট। পিনাক-৬ লঞ্চ ডুবির ঘটনার পর থেকে বিকেল সাড়ে ৫টার পর থেকে প্রসাশনের নির্দেশ মতে সব সি বোট চলাচল নিষেধ করা হয়েছে।

এই বিষয়ে মাওয়া পুলিশ ফাঁড়ির আইসি খালিদ হাসানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, গত ১৫ দিন ধরে তিনি ঢাকায় ট্রেনিংয়ে রয়েছেন এই জন্য তার পরিবর্তে ঢাকার নৌপুলিশ থেকে আসা এসআই ইউনুছ বর্তমানে চার্জে রয়েছেন। খালিদ হাসান জানান, গত ১৫ দিনের বিষয়টি আমার জানা নেই।

যুগান্তর

Comments are closed.