শ্রীনগরের ক্যান্সার আক্রান্ত ছাত্র পেটানো সেই প্রধান শিক্ষক নিতাই চন্দ্র বরখাস্ত

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের ক্যান্সার আক্রান্ত ছাত্র পেটানো সেই প্রধান শিক্ষক নিতাই চন্দ্র দাসকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্তে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। চাকুরী ঠেকাতে প্রদান শিক্ষক এখন বিভিন্ন জায়গায় দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন।

এ তথ্য নিশ্চিত করে শ্রীনগর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আজিজুল হক জানান, মজিদপুর দয়া হাটা কেসি ইনষ্টিটিউশনের পরিচালনা পরিষদ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক জরুরী সভায় বসে। বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি জালাল উদ্দিন মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। ঘটনা তদন্তে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে তদন্ত প্রতিবেদন কত দিনের মধ্যে জমা দেয়া হবে তা নিশ্চিত করতে পারেননি মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার।

এদিকে এ ব্যাপারে মঙ্গলবার রাতে প্রধান শিক্ষক নিতাই চন্দ্রের সাথে যোগাযোগ করা হলে তার বরখাস্তের বিষয়টি তিনি এখনও জানেন না বলে জানান। উল্লেখ্য গত শনিবার স্কুল চলাকালীন সময়ে শ্রীনগরের মজিদপুর দয়াহাটা কেসি ইনিষ্টিটিউশনের প্রধান শিক্ষার নিতাই চন্দ্র দাস অপরিচ্ছন্নতার অভিযোগে জোড় বেত্রাঘাতে সপ্তম শ্রেনীর ব্লাড ক্যান্সার আক্রান্ত ছাত্র তায়েব আলীসহ ২০ শিক্ষার্থীকে আহত করে।

মুন্সিগঞ্জেরকাগজ

Comments are closed.