গজারিয়ার ৪ শ্রমিক খুন ও ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেফতার

মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া থানার ৪ শ্রমিক খুন ও সিমেন্ট বোঝাই জাহাজ ডাকাতি মামলার আসামি মেহেদী হাসান রুবেল ওরফে পিচ্চি হাসান (২৮) বৃহস্পতিবার দুপুরে তালতলী উপজেলার বড়পাড়া গ্রাম থেকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বছর ৫ নবেম্বর মুন্সিগঞ্জ থেকে আলট্রাটেক সিমেন্ট বোঝাই সায়মা পরিবহনের একটি জাহাজ মেঘনা নদীতে ছিনতাই হয়। জাহাজসহ চার শ্রমিক নূরু মিয়া (৪৮), জাকির হোসেন (৩৫), মহিউদ্দিন (৪৫) ও আসাদ (৩২) নিখোঁজ হয়। পরে মেঘনা নদী থেকে চার শ্রমিকের লাশ পুলিশ উদ্ধার করে। জাহাজের মালিক নজরুল ইসলাম ৭ নবেম্বর এ ঘটনায় মুন্সিগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। ৮ নভেম্বর পটুয়াখালী র‌্যাব-৮ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে তালতলীর উপজেলার হেলেঞ্চাবাড়িয়া বাজার থেকে ১৫শ’ ৮০ বস্তা সিমেন্ট ও নিখোঁজ জাহাজটি পঁচাকোড়ালিয়া সস্নুইজ থেকে উদ্ধার করে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে গত ১১ নভেম্বর ১৩ জনকে আসামি করে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া থানায় ৪ শ্রমিক হত্যা ও জাহাজ ডাকাতির মামলা হয়। এ মামলায় মেহেদী হাসান রুবেল ওরফে পিচ্চি হাসান এজাহারভুক্ত আসামি। পিচ্চি হাসান দীর্ঘদিন লুকিয়ে থাকলেও বৃহস্পতিবার তালতলী থানা পুলিশ পচাঁকোড়ালীয়া ইউনিয়নের বড়পাড়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে। তার বিরুদ্ধে ঢাকার কাফরুল ও সাভারের আশুলিয়া থানায় একাধিক ছিনতাই, পাসপোর্ট জালিয়াতি ও চুরির মামলা রয়েছে। সে কাফরুল ও আশুলিয়া থানার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান জানান, মেহেদী হাসান রুবেল ওরফে পিচ্চি হাসানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া ৪ খুন, ঢাকার কাফরুল ও সাভারের আশুলিয়া থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

জনতা

Comments are closed.