শ্রীনগরের কোলাপাড়ায় প্রতারক চক্রের সদস্যরা সক্রিয় হয়ে উঠেছে

সুমিত সরকার সুমন: মুন্সীগঞ্জে একটি প্রতারক চক্রের সদস্যরা সক্রিয় হয়ে উঠেছে। বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষকে নানা রকমের প্রলোভন দেখিয়ে তারা সর্বস্ব কেড়ে নিচ্ছে। এই প্রতারক চক্রের মূল হোতা মো:শহীদুল ইসলাম(৪০)। তার বাড়ি এ জেলার শ্রীনগর উপজেলার কোলাপাড়া গ্রামে।সরেজমিন অনুসন্ধান করে জানা গেছে, অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের মূল হোতা শহীদুল ইসলাম একসময় গ্রামে মাটি কাটার দিনমজুর ছিলেন। দিনমজুরের পেশা ছেড়ে দিয়ে ঢাকার কেরানিগঞ্জের অপর অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের একজন সক্রিয় সদস্য হয়ে ওঠে। কয়েক বছরের মধ্যে তিনি নিজেই তার পরিবারের সদস্যদের এই পেশার সঙ্গে জড়িয়ে ফেলেন। আর তারপর থেকেই মো:শহীদুল ইসলাম ঢাকা-কেরানীগঞ্জও মুন্সীগঞ্জে অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের নেতা হয়ে উঠেন। তার নির্দেশেই চলে ঢাকা-কেরানীগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন বড় বড় ফ্লাটবাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি।

এছাড়াও সড়ক-মহাসড়কের বিভিন্ন যানবাহনে যাত্রী এবং গাড়ির ড্রাইভারদের নেশা জাতীয় দ্রব্য শুকিয়ে এবং খাইয়ে লুট করে নেয় গাড়ি এবং যাত্রীদের কাছে থাকা সব কিছু। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার কোলাপাড়া ইউনিয়নে গতকাল সরেজমিন অনুসন্ধান করে অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের এই মূল হোতার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ উঠে আসে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান,দীর্ঘদিন ধরে এই অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের সদস্যরা দেশের বিভিন্ন স্থানে এ জাতীয় অপরাধ সংঘটিত করে কোলাপাড়ায় নিজের বাড়িতে নির্বিঘেœ এসে অবস্থান করেন মো:শহীদুল ইসলাম এবং তাদের পরিবার।এদিকে স্থানীয় এক ব্যবসায়ী মো:দুলাল আহম্মেদ জানান, অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের এই সদস্যরা অভিজাত এলাকায় বাসা-বাড়িতে অফিস খোলে বেশ কিছুদিন বসবাস করার পরে ওই ফ্লাটের লোকজনদের সঙ্গে সর্ম্পক তৈরী করে।তারপর নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে লোকজনকে অচেতন করে ফ্লাটের মূল্যবান মালামালসহ সর্বস্ব লুট করে নিয়ে আসে। অপর দিকে কোলাপাড়া ভাইয়া একতা সমবায় সমিতির সভাপতি ও স্থানীয় ২নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি মো: নাহিদ হাওলাদার এ ব্যাপারে জানান, বহু দিন ধরেই এই এলাকার মো:শহীদুল ইসলাম এবং তাদের পরিবার অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্র গড়ে তুলেছে শুনে আসছি। তাদেরকে হঠাৎ হঠাৎ এই গ্রামে দেখা যায়। তাদের বর্তমান অবস্থান রহস্যজনক।অন্যদিকে একই গ্রামের মো:ইউসুফ এ বিষয়ে বলেন, মো:শহীদুল ইসলাম (৪০) লাবু (৩৫), দানেশ (৩৪)।এরা সকলে এই কোলাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। কিন্তু তারা অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য।

তিনি আরো জানান, সারাধণ মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে লাখ লাখ টাকা লুটে নিচ্ছে এই চক্রটি। এদিকে খোজঁ নিয়ে আরো জানা গেছে, অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের মূল হোতা মো:শহীদুল ইসলাম এ কাজে সুন্দরী নারীদেরকে ব্যবহার করছে।ছোট বড় ব্যবসায়ীদের মনোরঞ্জনের জন্য ওই সুন্দরী নারীদের এ কাজে ব্যবহার করে পরে তাদের কাছ থেকে জমি ও বাড়ির দলিল চেয়ে নেন। এবং তা ফিরিয়ে নেয়ার জন্য ওই সকল ব্যবসায়ীদের কাছে মোটা অঙ্কেও টাকা চাঁদাও দাবী করেন। জানা যায়, এই অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের হোতা মা:শহীদুল ইসলাম। তার পিতা মো: নুরুল ইসলাম লাবু(৩৫), পিতা, খবির হোসেন। এদের সকলের স্থায়ী বাড়ি মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার কোলাপাড়া গ্রামে।

এদিকে এ ব্যাপারে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, এবং র‌্যাব-১১ এর কাছে এই অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্যদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন স্থানীয় গ্রামবাসি। এই অজ্ঞানপার্টির প্রতারক চক্রের নানা কর্মকান্ডের ব্যাপারে কোলাপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো:মামুনের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ ব্যাপারে বলেন, আমি ও এলাকার লোকজনের মত শুনেছি। কিন্তু এ বিষয়ে কোনো সঠিক তথ্য আমার জানা নেই।

বিডিলাইভ

Comments are closed.