মিরকাদিমের ধবল গরু

mirkadim-cow-01কোরবানিতে পুরান ঢাকার বাসিন্দাদের প্রিয় মুন্সীগঞ্জ সদরের মীরকাদিমের ধবল (সাদা) গরু। কোরবানির ঈদে তাদের রসনাবিলাসে আর কিছু থাকুক বা না থাকুক, মীরকাদিমের সাদা গরুর মাংস থাকা চাই। মুন্সীগঞ্জে পালিত হলেও এ জেলার কোনো হাটে এই গরু বিক্রি হয় না। কোরবানির ঈদ উপলক্ষে মাত্র এক সপ্তাহের জন্য ঢাকার রহমতগঞ্জ মাঠে (গনি মিয়ার হাট) এ গরুর হাট বসে। এ গরুর কদর ও দাম একটু বেশি। ৮০ হাজার থেকে ৮ লাখ টাকায় মিলবে মীরকাদিমের ঐতিহ্যবাহী সাদা গরু।

ভারত ও ভুটানের আবাল-পশ্চিমা সাদা ষাঁড় ও সাদা গাভীর বাচ্চা কিনে আনেন মীরকাদিমের খামারিরা।
mirkadim-cow-02
থামারি সোহেল মিয়া জানান, একেকটি বাছুর বড় করতে ও কোরবানির হাটে বিক্রির উপযোগী করে তুলতে ৮-১০ মাস সময় লাগে। প্রতিটি গাভী ও ষাঁড় ধোয়া-মুছার যত্নে ব্যবহার করা হয় নতুন গামছা। একটি নতুন গামছা একদিনের বেশি ব্যবহার করা হয় না।

লালন-পালনকালে গরুকে খেতে দেওয়া হয় খৈল, ভূষি, ভাতের মাড় ও ভাত। তাছাড়া মাটি চাঁপা দিয়ে ধানের কুটা পচিয়ে বিশেষ ধরনের খাবার তৈরি করে খেতে দেওয়া হয় এ সব গরুকে। খামারের ভেতরের পরিবেশ বেশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা হয়।
mirkadim-cow-03
বাহিরের কাউকে খামারের ভেতর ঢুকতে দেওয়া হয় না। ৪-৫ জন শ্রমিক গরুর যত্ন নেওয়ার জন্য নিয়োজিত থাকেন। তবে এ গরু মোটাতাজা করতে কোনো ইনজেকশন বা রাসায়নিক খাবার ব্যবহার করা হয় না বলে জানান খামারি সোহেল।
mirkadim-cow-04
দ্য রিপোর্ট

Comments are closed.