শ্রীনগরে কুরবানী হাটের ইজারা নিয়ে ইউএনওকে লিগ্যাল নোটিশ

cow hমুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে কোরবানির অস্থায়ী গরু-ছাগলের হাটের ইজারা নিয়ে আপত্তি উঠেছে। গোপনে সরকার দলীয় এক নেতাকে অল্প টাকায় উপজেলার বাঘড়া বাজার সংলগ্ন অস্থায়ী গরু-ছাগলের হাট ইজারা দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. আমিনুল ইসলাম অভিযোগকারী বাঘড়ার আলহাজ শফিকুল ইসলাম শফিকের পক্ষে সকাল সাড়ে ১০টায় শ্রীনগর ইউএনও’র কাছে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন। তিনি ওই গরু-ছাগলের হাটের জন্য সময়সূচি নির্ধারণ করে প্রকাশ্যে ইজারা দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছেন ইউএনওকে। এর অনুলিপি মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছেও ফ্যাঙ বার্তা পাঠিয়েছেন।

এর আগে গত ১৪ই সেপ্টেম্বর আলহাজ শফিকুল ইসলাম শফিক শ্রীনগর ইউএনও শাহানারা বেগমের কাছে ওই হাটের সিডিউল প্রকাশ্যে বিক্রি ও হাট ১৫ লাখ টাকায় ইজারা নেয়ার জন্য লিখিত আবেদন করেছেন। কিন্তু একই দিন বাঘড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুকশেদ মাদবরকে ১লাখ ৭২ হাজার টাকায় ইজারা দেয়া হয়। এতে করে সরকার বিপুল পরিমাণ টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হলো।

শ্রীনগরের বাঘড়া গ্রামের আলহাজ শফিকুল ইসলাম শফিক জানান, আমি অনেকবার বাঘড়া হাট-বাজার ও খেয়াঘাটের সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে ইজারা পাই। কিন্তু এবার সিডিউল প্রকাশ্যে বিক্রি ও ক্রয় করতে পারলে সরকারের আয়ের জন্য ভ্যাট ও আয়করসহ সর্বনিম্ন ১৫ লাখ টাকায় দর প্রদান করবো। গত ১৪ ই সেপ্টেম্বর শ্রীনগর ইউএনও’র কাছে লিখিত আবেদনেও তা উল্লেখ্য করেছি। কিন্তু গোপনে করার কারণে তা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে শ্রীনগর ইউএনও শাহানারা বেগম বলেন, সিডিউল গোপনে বিক্রি করা হয়নি। অভিযোগকারী যথাসময়ে কেন আসেননি।

জাস্ট নিউজ

Comments are closed.