মুন্সীগঞ্জে ২৫৭ মন্ডপে দূর্গা পূজার প্রস্তুতি চলছে

Pujaআসন্ন দুর্গা উৎসবে মুন্সীগঞ্জের ২শ’ ৫৭ মন্ডপে দুর্গাপুজার প্রস্তুতি শুরু হয়েগেছে। তাই এখন এখন চলছে প্রতিমা তৈরির ধুম। প্রতিমাগুলোতে শিল্পীর নিপুন ছোয়া চলছে রাত দিন। অনেক মন্ডপে রং তুলি নিয়েও এই ভাস্কর শিল্পীরা ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। মন্ডপের বাইরের সাজ সজ্জা নিয়েও নানা পরিকল্পনা আর প্রস্তুতি চলছে। কে কার চেয়ে আকর্ষণীয় করতে পারে সেই চেষ্টাই চলছে। দাওয়াত কার্ডেও তেমন ছোয়া। বৈচিত্র্যপূর্ণ দায়াত কার্ড বিলি হতে শুরু হয়েছে। এবার বাঙালির এই শারদীয় উৎসবকে ঘিরে আগাম প্রস্তুতি চলছে জোরে সোরে।

মঙ্গলবার জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল হাসান বাদলের সভাপতিত্বে তাঁর সভা কক্ষে এই দূগাপূজোর প্রস্তুতি সভা হয়েছে। এতে অ্যাডভোকেট মৃনাল কান্তি দাস এমপি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাকির হোসেন মজুমদার, জেলা ভারপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এনামূল হক, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট অজয় চক্রবর্তী, প্রেসক্লাব সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল, ইদ্রাকপুর পূজা মন্ডপের সার্বিক দায়িত্বে থাকা অভিজিৎ দাস ববি প্রমুখ আলোচনায় অংশ নেন। সভায় এই উৎসবকে সফল ভাবে সপন্ন করতে নানা পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়। এবার একটি বেশী পূজো হচ্ছে লৌহজং উপজেলায়।

তাই লৌহজং উপজেলায় ২৮ মন্ডপে পূজো হবে। সবচেয়ে বেশী পূজো হচ্ছে সিরাজদিখান উপজেলায় ৮৬টি।

শ্রীনগর উপজেলায় হচ্ছে ৬১ মন্ডপে। টঙ্গীবাড়ি উপজেলায় এবার ৪৩ মন্ডপে পুজো হবে।

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলায় ৩২ মন্ডপে পূজোর প্রস্তুতি চলছে।

মেঘনা তীরের গজারিয়া উপজেলার সাত মন্ডপে পূজো হবে।

জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা জেলার ২৫৭ মন্ডপের মধ্যে ৭৮ মন্ডপকে অতি ঝুকিপূর্ণ এবং ১০২টি মন্ডপকে ঝুকিপূর্ণ ৭৭টিকে সাধারণ মন্ডপ হিসাবে চিহ্নিত করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে শুরু করেছে। আনসারের পাশাপাশি পুলিশ ও র‌্যাব ছাড়াও এবার গোয়েন্দা পুলিশ বেশী সজাগ থাকবে।

জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার জানিয়েছেন, পূজোর উৎসবকে সফল করতে নিরাপত্তা বেষ্টনি থাকবে কয়েক ধাপে। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান এই উৎসবকে ঘিরে তাই প্রাচীন জনপদ মুন্সীগঞ্জ তথা বিক্রমপুরে চলছে আগাম উৎসব আমেজ। গতবছর জেলায় ২শ’ ৫৬ টি মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

মুন্সিগঞ্জেরকাগজ

Comments are closed.