পদ্মাসেতু এবং বিক্রমপুর

padmaaরনি হোসাইন: আত্মার আত্মীয়তায় আমি এবং আমরা পদ্মা নদীর সাথে সম্পৃক্ত হাজার বছর ধরে। পদ্মা মানেই আমাদের অনুভুতি একটু অন্য রকম। পদ্মার পানি, মাছ, পারের শীতল বাতাশ, মনমুগ্ধকর দৃশ্য, পদ্মার বুকে ভেসে উঠা সুবিশাল চর এবং চরের সবুজ আমাদের সবাইকে খুব কাছে টানে, এ এক অন্য রকম অনুভুতি । পদ্মার তীরে জন্ম নেয়া কবি, সাহিত্যিক, লেখক, গায়ক, সাধক, জ্ঞানী, বিজ্ঞানী, সুশীল এবং বভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ দেশ এবং বিদেশে আমাদের পরিচয় করিয়েছে বিশেষ ভাবে, যার কারনে আমরা সবাই বিক্রমপুর বলে গর্ববোধ করি।

পদ্মা আমাদের যেমন দিয়েছে অনাবিল সুখ, তেমনি কেরেছে আমদের অনেক স্বপ্ন, ছিনিয়ে নিয়েছে আমাদের বাপ-দাদার পুরনো ভিটা-মাটি, করেছে গৃহহীন, গুরিয়ে দিয়েছে ঐতিহাসিক অনেক স্থাপনা এবং ছোট করে দিয়েছে আমাদের আয়তন।

যুগ যুগ ধরে আমাদের পূর্ব-পুরুষ থেকে শুরু করে অদ্যবদি আমরা পদ্মার সাথে লড়াই করে, সংগ্রাম করে শুধু ক্লান্ত হচ্ছি, ভাঙ্গন রোধে অনেক পদক্ষেপ নিয়ে আসছি, তবুও কোন নিস্তার পাতছিনা এবং এখনও সহ্য করেই জাতছি, শুধু অসহায়ের মত সহ্য করছি পদ্মার আগ্রাসী তাণ্ডব।

আমাদের প্রিয়, ভাললাগা-ভালবাসার বিক্রম্পুরকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে পদ্মা নদীকে নিয়ন্ত্রণের করতে হবে।

পদ্মাসেতু আমাদের জন্য আশীর্বাদ হয়ে এসেছে। এই সেতুর ফলে পদ্মা নদীকে শাসন করা সম্ভব হবে। যারফলে রক্ষাপাবে আমাদের বিক্রমপুর। আমরা জাতিও অর্থনীতিতে অতীতের থেকে ভবিষ্যতে আরও অনেক বেশী অবদান রাখতে পারব। ঢাকার অদূরে হওয়ার কারণে ঢাকায় বসবাসকারী মানুষের কাছে বিক্রমপুর খুব দর্শনীয় স্থান হিসেবে পরিচিত, বিশেষ করে যুব সমাজের কাছে। আমাদের বিক্রমপুরে রয়েছে অনেক ঐতিহাসিক, মানসম্পন্ন, সুস্বাদু এবং লোভনীয় খাবার, যা কিনা সারাদেশের মানুষের কাছে সুপরিচিত।

পদ্মাসেতু সারা দেশের যোগাযোগ সহজ করে তুলবে এবং সড়ক বেবস্থার উন্নতি হলে বসবাস অনুউপযুগী ঢাকার উপর চাপ করবে। অতীতের মত ভবিষ্যতে বিক্রমপুর দেশ-বিদেশের মানুষের কাছে ঐতিহ্যবাহী, সমৃদ্ধ এবং দর্শনীয় স্থান হিসেবে বিবেচিত হবে। আমাদের বিক্রমপুর নতুন প্রজন্মের জন্য বসবাস যোগ্য আধুনিক আবাশস্থল হবে। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম গর্বকরে বলবে “আমি বিক্রম্পুইরা পোলা”।

বিক্রম্পুরের নদি-নালা, খাল-বিল, গাছ-পালা, ফুল-ফল, ফসলিজমি, সবুজঘাস এবং পাখ-পাখালির ডাক, আমার প্রিয় ভালবাসার বিক্রমপুর কোটি বছর মানুষের মনে বেঁচেথাক।

রনি হোসাইন
এডমিন, বিক্রমপুর কমিওনিটি
বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান,
নব নির্বাচিত সহ-সভাপতি, যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগ,২০১৪
সদস্য, লৌহজং উপজেলা ছাত্রলীগ,২০১১
সাবেক সদস্য, আহব্বায়ক কমিটি মুন্সিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ,২০১১
সাবেক যুগ্ম-সাধারণ, সম্পাদক লৌহজং উপজেলা ছাত্রলীগ,২০০৭
সাবেক ছাত্রলীগ নেতা, লৌহজং ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগ২০০৪-২০০৬
যুগ্ম-আহবায়ক, কনকসার ইউনিয়ন ছাত্রলীগ, ২০০৪
অ্যাডমিন, বিক্রমপুর কমিউনিটি .
Find me @Facebook.com/nir.h.roni
+447804924780

Comments are closed.