নির্বাচন কমিশনের কাণ্ড!

EC-Officeএটাকে দায়িত্বে অবহেলা নাকি দায়সারা নাকি ভুল- কী বলা যাবে! এক ওসিকে নির্বাচনী কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট জেলার পুলিশ সুপারকে দেয়া নির্দেশনা সম্বলিত চিঠি পাঠানো হলো ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার আধাঘণ্টা পর!

নির্বাচন কমিশন (ইসি) এ কাণ্ডটি ঘটিয়েছে রোববার।

বালিয়াকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ উপ-নির্বাচনে গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদাউস হোসেনকে নির্বাচনী যাবতীয় কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার বরাবর চিঠি দিয়ে ওই নির্দেশ হজারি করা হয়। কিন্তু তার আধাঘণ্টা আগেই সেখানকার ভোটগ্রহণ শেষ হয়।

নির্বাচন কমিশনের সহকারী সচিব মোহাম্মদ আশফাকুর রহমান স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে বলা হয়, ‘উপযুক্ত বিষয় ও সূত্রের প্রেক্ষিতে জানানো যাচ্ছে যে, মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার বালুয়াকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ উপ-নির্বাচন উপলক্ষে গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ফেরদাউস হোসেনকে নির্বাচন সংক্রান্ত যাবতীয় কর্মকাণ্ড থেকে বিরত রাখার নির্বাচন কমিশন নির্দেশনা প্রদান করেছেন।’

চিঠিতে আরো বলা হয়, ‘উপরোক্ত বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মোতাবেক দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশিত হয়ে অনুরোধ করা হলো।’

তবে কেন তাকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখা হচ্ছে এ বিষয়ে চিঠিতে কিছু বলা হয়নি।

নির্বাচন শেষ হওয়ার পর নির্দেশনা জারি করার কারণ জানতে চাইলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে সংশ্লিষ্ট শাখার এক সহকারী সচিব বাংলামেইলকে বলেন, ‘আমরা হচ্ছি হুকুমের গোলাম। উপর থেকে (কমিশনারগণ) যে নির্দেশনা হয়, আমাদের তাই-ই করতে হয়। আজ কমিশন বৈঠক ছিল। বৈঠকে এ বিষয়ে সিন্ধান্ত হয়েছে, এ কারণে চিঠি দিতে দেরি হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, গত ২৩ মার্চ গজারিয়া উপজেলা নির্বাচনের দিন সহিংসতায় ইউপি চেয়ারম্যান সামসুদ্দিন প্রধান নিহত হন। পরে নির্বাচন কমিশন বালুয়াকান্দি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদটি শূন্য ঘোষণা করে। পরে ইসি এ ইউনিয়নের নির্বাচনের দিন ধার্য করে।

এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ নেতা ও নিহত ইউপি চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন প্রধানের স্ত্রী মর্জিনা বেগম তালা প্রতীক নিয়ে ৪৪৫০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ও উপজেলা শ্রীমক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান মাস্টার আনারস প্রতীক নিয়ে ভোট পেয়েছেন ২২৩৭টি।

বাংলামেইল২৪