তদন্ত প্রতিবেদন ১০ দিনে দেয়া সম্ভব নয় ॥ ক্যাপ্টেন জসিম

pinakDপদ্মায় এমভি পিনাক-৬ লঞ্চডুবির ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন ১০ কার্যদিবসের মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া সম্ভব নয় বলে জানালেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় গঠিত ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটির সদস্য সচিব ক্যাপ্টেন কেএম জসিমউদ্দিন সরকার। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় মাদারীপুরের শিবচরের কাওড়াকান্দিঘাটে লঞ্চ দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যাওয়া যাত্রীদের সাক্ষ্য গ্রহণকালে তিনি এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, সাক্ষ্য নেয়ার জন্য আরও কিছু সময়ের প্রয়োজন।

বেঁচে যাওয়া যাত্রীদের সাক্ষ্য, যারা উদ্ধার করেছে তাদের সাক্ষ্য, যারা নৌযানের মালিক তাদের সাক্ষ্য, ঘাটের ইজারাদারদের সাক্ষ্য গ্রহণ করতে হবে। এছাড়া আবহাওয়া অফিসের তথ্য সংগ্রহ করতে হবে। সেদিন স্রোত কেমন ছিল এসব তথ্য সংগ্রহ করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে হবে।

মাওয়াঘাট এলাকায় দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যাওয়া ৫ যাত্রী ও ২ প্রত্যক্ষদর্শী স্পীডবোট চালক এবং কাওড়াকান্দি ঘাটে দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যাওয়া ৭ যাত্রীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় গঠিত ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রধান যুগ্ম সচিব নূরু-উর-রহমান, বুয়েট শিক্ষক ডা. গৌতম কুমার সাহা, বিআইডব্লিউটিসি’এর প্রকৌশলী ফিরোজ আহম্মেদ, বিআইডব্লিউটিসি’এর প্রধান প্রকৌশলী আব্দুর রহিম তালুকদারসহ অন্যরা।

মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌ-রুটে গত ৪ আগস্ট বেলা ১১টার দিকে মাদারীপুরের কাওড়াকান্দি ঘাট থেকে মাওয়াগামী প্রায় ৩ শতাধিক যাত্রী নিয়ে এমভি পিনাক-৬ লঞ্চটি ডুবে যায়।

জনকন্ঠ