এসি রুমে চেয়ারম্যান, ‘কাণ্ডারি’র খবর নাই

pinakC1পদ্মায় ডুবে যাওয়া লঞ্চ এমভি পিনাক-৬ এর খোঁজ ৫৬ ঘণ্টা পরও পাওয়া যায়নি। উদ্ধার তৎপরতায় গা ছাড়া ভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যানের মধ্যে।

ডুবন্ত লঞ্চ পিনাক-৬ উদ্ধার কার্যক্রমে যোগ দিতে চট্টগ্রাম থেকে রওনা হওয়া উদ্ধারকারী জাহাজ ‘কাণ্ডারি’ পৌঁছানোর বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান একবার বলছেন বিকেল ৪টা থেকে ৫টার মধ্যে পৌঁছাবে। কিছুক্ষণ পর আবার বলছেন, ৬টা-সাড়ে ৬টার মধ্যে পৌঁছাবে।

বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে মাওয়া ঘাটে সেতু বিভাগের ডাকবাংলোয় গিয়ে দেখা যায়, শীততাপ নিয়ন্ত্রিতকক্ষে বসে তিনটি মোবাইলে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান শামসুদ্দোহা খন্দকার।

দ্য রিপোর্টের পক্ষ থেকে বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যানের কাছে উদ্ধার তৎপরতার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি একেক সময় একেক রকম তথ্য দেন।

সঠিক সময় বলতে না পারায় পুনরায় উদ্ধারকারী জাহাজ কাণ্ডারির অবস্থান সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘণ্টা দুয়েক আগে চাঁদপুর থেকে রওনা হয়েছে। কিছুক্ষণের মধ্যেই চলে আসবে। হয়তো ৪টা সাড়ে ৪টা বাজবে।

কাণ্ডারি জাহাজটি ঠিক কোথায় আছে, সকাল ১০টা থেকে বলা হচ্ছে চাদঁপুর থেকে কাণ্ডারি ছেড়েছে কিন্তু এখনো পৌঁছায়নি। কারণ কি- জানতে চাইলে শামসুদ্দোহা খন্দকার সুনির্দিষ্ট তথ্য দিতে না পেরে বিআইডব্লিউটিএ’র অপারেশন বিভাগের নৌ-সংরক্ষক (পরিচালক) মোহাম্মদ হোসেনকে ফোন করেন। ফোনে কথা বলা শেষে তিনি বলেন, কাণ্ডারি আসতে ৬টা বাজতে পারে।

মাওয়া ঘাটের কাছে সেতু বিভাগের রেস্ট হাউজের শীততাপ নিয়ন্ত্রিত রুমে পায়ের উপর পা তুলে আরামে কথা বলছেন বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান। কোনো ধরণের উদ্বেগ উৎকন্ঠা দেখা যায়নি তার মধ্যে
pinakC2
পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে দুই রকম তথ্য দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান বলেন, ‘এটা তো আমার লেভেল থেকে যোগাযোগ হয় না। যোগাযোগ করে আমার নিচের লেভেলের অফিসাররা। তারাই আমাকে তথ্য জানায়।’

এত বড় একটি ঘটনায় আপনার কাছ থেকে যেভাবে তথ্য পাওয়া গেল তাতে কি কোনো বিশেষ তৎপরতার লক্ষণ প্রকাশ পায়? আপনার অফিসাররা জানেন না, আপনি নিজেও জানেন না কাণ্ডারি এখন কোথায় (পজিশন)। এর পরও বলছেন সেটি দুই ঘণ্টার মধ্যে এসে যাবে- দ্য রিপোর্টের এমন প্রশ্নের মুখে শামসুদ্দোহা খন্দকার ফোন দেন চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল নিজামউদ্দিনের কাছে।

ফোনে কথা বলা শেষে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, ৬টার মধ্যে উপস্থিত হবে কাণ্ডারি।

৫৬ ঘণ্টারও বেশি সময় পার হল এখনও উদ্ধারকারী জাহাজের অবস্থান জানেন না- এ প্রশ্নের জবাবে বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান আবারও বলেন, ‘আমি তো আমার লেভেলে যোগাযোগ করব। উদ্ধারকারী জাহাজে কে আছে, না আছে তার সঙ্গে তো আমার যোগাযোগ হবে না।’

তার মানে আপনি এখনও নিশ্চিত জানেন না উদ্ধারকারী জাহাজ কাণ্ডারি এখন কোথায়?

‘হ্যাঁ, আমি সুনির্দিষ্টভাবে বলতে পারছি না। তবে খুব শিগগিরই পৌঁছাবে।’

সেতু বিভাগের ডাকবাংলোয় বিআইাডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যানে সঙ্গে কথা বলার সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিএ’র প্ল্যানিং ও অপারেশনের পরিচালক ভোলানাথ দে ও মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান বাদল।

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক দ্য রিপোর্টকে জানান, বিকেল সাড়ে ৪টায় এই বাংলোতে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তার একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকের পর সামগ্রিকভাবে আজকের পরিস্থিতি সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরা হবে।

উল্লেখ্য, এমভি পিনাক-৬ নামে লঞ্চটি দুই শতাধিক যাত্রী নিয়ে সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে পদ্মা নদীর লৌহজং চ্যানেল এলাকায় ডুবে যায়। তীব্র স্রোত ও ঘূর্ণাবর্তে পড়ে লঞ্চটি ডুবে যায় বলে উল্লেখ করা হলেও অতিরিক্ত যাত্রীবোঝাই লঞ্চডুবির অন্যতম কারণ বলে অভিযোগ উদ্ধার হওয়া যাত্রীদের।

স্থানীয় প্রশাসনের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার বিকেল পর্যন্ত ১৩৯ জনের নিখোঁজের তালিকা পাওয়া গেছে। এর মধ্যে নয়জনের মৃতদেহ পাওয়া গেছে। পরিচয় মিলেছে চারজনের।

দ্য রিপোর্ট