মুন্সীগঞ্জ-নারায়নগঞ্জ নৌ-রুটে দিনে দুপুরে ছিনতাই!

hjযাত্রীরা চরম নিরাপত্তাহীনতায়
শুক্রবার সকালে মুন্সীগঞ্জ লঞ্চঘাট থেকে ছেড়ে আসা এম, এল দারাশিকো (১) লঞ্চের যাত্রী নারায়নগঞ্জ মেরিণ একাডেমীর ছাত্র নূর আলী দামী মোবাইল সেট (স্যামসাং এম -৩) লুটে নিয়ে নদীতে ঝাপিয়ে পড়ে ছিনতাইকারী। দিনে-দুপুরে ব্যাস্ততম এ নৌ-রুটে দিনে-দুপুরে ছিনতাই-রাহাজানীর ঘটনা ঘটায়, যাত্রী সাধারণ চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ ব্যাপারে মালিক সমিতিতে একাধিক অভিযোগ জানিয়েও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় যাত্রীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। ছিনতাইয়ের শিকার যাত্রী নূর আলী জানান, ঢাকা সি, এম, এইচ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার বাবাকে দেখতে ছোট্ট ভাতিজাকে নিয়ে তিনি রওয়ানা হন। পথিমধ্যে লঞ্চটি সোনাকান্দা ডকইয়ার্ডের কাছে পৌছলে বেশ কয়েকজন যুবক সাতড়িয়ে লঞ্চে উঠে, মূহুর্তেও মধ্যে দামী মোবাইল সেটটি নিয়ে এক যুবক নদীতে ঝাপিয়ে পড়ে।

দাড়াশিকো লঞ্চের সারেং মো: সাইফুল জানান, এ রুটে প্রায়ই যুবকরা জোড়-জবরদস্তি করে চলন্ত লঞ্চে উঠে যাত্রীদেও পানিতে ভিজিয়ে দেয়, কখনো দামী নানা জিনিস নিয়ে নদীতে লাফিয়ে পড়ে। তাদের সঙ্গে দেশীয় অস্ত্র থাকে বাধা দিলে তারা উল্টো লঞ্চের ষ্টাফদের মারধর করে এছাড়া নানা ভাবে অত্যাচার করে। এ ব্যাপারে মালিক সমিতিকে জানিয়েছি । লঞ্চ মালিক সমিতির সুপ্রাভাইজার মো: জহির জানান, এ ঘটনা প্র্য়াই ঘটছে, আমরা একাধিকবার এর প্রতিকার চেয়ে নারায়নগঞ্জ লঞ্চঘাট সংলগ্ন নৌ-ফারী পুলিশ কর্মকর্তাদের জানিয়েছি তবে কোন প্রতিকার হচ্ছে না। প্রসঙ্গত তিনি আরো জানান নারায়নগঞ্জ টার্মিনাল থেকে মুন্সীগঞ্জ, চাদপুর, সুরেশ্বর মতলব, গজারিয়া সহ ৮টি রুটে বর্তমানে ২৪ ঘন্টায় ৮০টির বেশী লঞ্চ চলছে। এসব লঞ্চে ২৪ ঘন্টায় ২৫/৩০ হাজার লোক যাতায়াত করে থাকে ।

এফএনএস