বিআরটিসি বাসের মালিকানা নিয়ে দন্দ্ব : দুই ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ

আরিফ হোসেন: ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে চলাচলকারী বিআরটিসি বাসের মালিকানা নিয়ে দন্দ্বের জেরের কারণে এক পক্ষের শ্রমিক কর্মচারীরা মহাসড়কের ষোলঘর বাসষ্ট্যান্ডে ব্যারিকেট দিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত প্রায় দুই ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ করে রাখে।

এতে রাস্তার দুই পাশে প্রায় দশ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে শ্রীনগর থানা পুলিশ দুপক্ষের সাথে আলোচনা করে সমাধানের আশ্বাষ দিলে আন্দোলন কারীরা তাদের অবরোধ তুলে নেয়। আন্দোলনকারীরা জানায়, ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে দীর্ঘদিন ধরে নন্দলাল মন্ডলের অধীনে বিআরটিসি বাস চলাচল করে আসছে।

সম্প্রতি লৌহজং উপজেলার মেদিনীমন্ডল ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশ্রাফ হোসেন নতুন করে বিআরটিসি বাস চালানোর অনুমুতি নেন। শুক্রবার সকালে আশ্রাফ হোসেনের লোকজন মাওয়া ঘাটে নন্দলাল মন্ডলের মালিকানা ধীন বিআরটিসি ও গ্রেট বিক্রমপুর বাসের দুটি কাউন্টার গুড়িয়ে দেয় ও তাদের কর্মচারীদের মারধর করে বলে অভিযোগ করেন নন্দলালের কর্মচারীরা। এর প্রতিবাদে তারা নন্দলাল মন্ডলের গ্রামের বাড়ি ষোলঘর এলাকায় চার পাঁচটি বিআরটিসি ও গ্রেট পরিবহনের বাস রাস্তায় আরা আরি করে রেখে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধকরে দেয়।

এব্যাপারে আশ্রাফ হোসেনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।