সিরাজদিখানে রাত হলেই ডাকাত আতঙ্ক!

dakatসিরাজদিখানে এক দিনের ব্যবধানে ফের একই রাতে ২ বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতরা নগদ ৯৫ হাজার টাকা, ১ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ২টি মোবাইল সেটসহ মূল্যবান জিনিসপত্র লুটে নিয়েছে। এ সময় ডাকাতের প্রহারে আহত হয় এক ব্যক্তি।

কেয়াইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আ. বারেক জানান, রবিবার রাত ১টার দিকে কালো মুখোশ পরা ১০-১২ জনের একটি ডাকাত দল বড় শিকারপুর গ্রামের মানিক মন্ডল ও মাসুদ মোড়লের (৩০) বাড়িতে ডাকাতি করে।

ডাকাতরা প্রথমে মানিক মণ্ডলের বিল্ডিংয়ের কলাপসিবল গেটের তালা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে সকলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মানিক মণ্ডলকে মারধর করে আহত করে।

এ সময় তারা ৬০ হাজার টাকা, ১ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়। পরে তারা মাসুদ মোড়লের বাড়িতে দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে একই কায়দায় ৩৫ হাজার টাকা ২টা মোবাইল সেট লুটে নেয়।

এর আগে শুক্রবার একই রাতে ৪ বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতরা নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, মোবাইল সেটসহ মূল্যবান সামগ্রী লুট করে নেয়। ডাকাতের প্রহারে আহত হয়েছে দুই ব্যক্তি।

চিত্রকোর্ট ইউপি ৫ নং ওয়ার্ড মেম্বার মো. আজিম জানান, শুক্রবার রাত ১টার দিকে কালো মুখোশ পড়া ২০/২৫ জনের একটি ডাকাত দল উপজেলার চিত্রকোর্ট ইউনিয়নের মরিচা গ্রামের অজিত মন্ডল (৫০), লক্ষণ মন্ডল (৬০), উজ্জ্বল দেওয়ান (৪৫) ও নিপেন মন্ডল (৬০) এর বাড়িতে ডাকাতি করে।

ডাকাতরা প্রথমে অজিত মন্ডলের বিল্ডিংয়ের কল্যাপসিবল গেটের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে বাড়ির সকলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অজিতের ছেলে বিকাশ মন্ডল (৩০) ও বিপ্লব মন্ডলকে (২৮) মারধর করে আহত করে। এসময় তারা নগদ ১০ হাজার টাকা, ১ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়। পরে তারা লক্ষণ মন্ডলের বাড়িতে দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে একই কায়দায় ২ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয় ।

সিরাজদিখানে ডাকাত আতঙ্ক বিরাজ করছে। প্রায় রাতে উপজেলার কোনো না কোনো গ্রামে ডাকাতি হচ্ছে। এর আগে এক মাসে গ্রামের অনেক বাড়িতে ডাকাতি হয়। ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঠেকাতে গ্রামবাসী রাত জেগে পাহারা দেওয়ার ব্যবস্থা করছেন। তবে কোনোভাবেই ডাকাতি ঠেকানো যাচ্ছে না।

সিরাজদিখান থানার ডিউটি অফিসার এএসআই মীর নূর ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে থানায় কেউ অভিযোগ করেনি।

ব্রেকিংনিউজ