লঞ্চ ডুবি : গজারিয়ায় যাচ্ছে তদন্ত কমিটি

BIWTAতদন্তের প্রয়োজনে আগামীকাল মঙ্গলবার মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার যাচ্ছে নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) তদন্ত কমিটি। কমিটির প্রধান ও বিআইডব্লিউটিএ সদস্য (অর্থ) মোঃ মনিরুজ্জামান দ্য রিপোর্টকে বলেন, ‘আমরা ১৯ মে থেকে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে গণশুনানি কার্যক্রম শুরু করেছি। ইতোমধ্যে ২৫-২৭ জন প্রত্যক্ষদর্শী শুনানিতে অংশ নিয়েছেন। তদন্তের স্বার্থে আমরা এখনই তথ্য প্রকাশ করছি না। শুনানি কার্যক্রম আরও কয়েকদিন অব্যাহত থাকবে। এর ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার গজারিয়ায় যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আমরা বিছিন্নভাবে ৫৪ জন নিহতের খবর পেয়েছি। তবে মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসককে (ডিসি) নিহতের প্রকৃত সংখ্যা দিতে বলা হয়েছে। তথ্য আসার পরেই প্রকৃত সংখ্যা আমরা জানাতে পারব।’

নৌ-দুর্ঘটনার তদন্তে ৮ দিন ধরে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে চলছে গণশুনানি। চার সদস্যবিশিষ্ট কমিটি শুনানি কার্যক্রম চালাচ্ছে।

গণশুনানিতে অংশ নিয়ে বিআইডব্লিউটিএ’র মেরিন চিফ ইঞ্জিনিয়ার মির্জা শরিফ রহমান জানান, জানুয়ারির ১৯ তারিখে এ লঞ্চটি সার্ভে করা হয়। লঞ্চটির ইঞ্জিনের বিএইসপি (হর্স পাওয়ার) ২০০ থেকে ২৪০ পর্যন্ত ছিল। পরে তা বাড়িয়ে ৩০০ করা হয়। তা ছাড়া লঞ্চটির কাঠামো ত্রুটিমুক্ত ছিল।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ মে গজারিয়ার দৌলতপুরে মেঘনায় ডুবে যায় এমভি মিরাজ-৪। কারণ হিসেবে যাত্রীরা লঞ্চের সারেং ও কেরানির অবহেলাকে দায়ী করেন। লঞ্চ ডুবির ঘটনায় ১৮ মে তদন্ত দল গঠন করে বিআইডব্লিউটিএ।

দ্য রিপোর্ট